আক্রান্ত
১১৭৬৪
সুস্থ
১৪১৪
মৃত্যু
২১৬

চট্টগ্রামে বাড়ছে করোনারোগী, একদিনেই মিললো সাড়ে ৪০০

0
high flow nasal cannula – mobile

চট্টগ্রামে ভয়ংকরভাবে বাড়ছে করোনারোগী। আগেরদিনের ৩৪৬ জন ছিল চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্ত। ২৪ ঘণ্টার মাথায় সেটিকে পেছনে ফেলে নতুনভাবে করোনাভাইরাস শনাক্ত হলো ৪৪৫ জনের দেহে। রেকর্ড ১৫৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে এসব রোগীর হদিস পাওয়া যায়। তাতে এই প্রথম একদিনে চারশতাধিক করোনারোগী দেখলো চট্টগ্রাম। নতুন শনাক্তের মধ্যে নগরেই রয়েছে তিন শতাধিক, ৩২৪ জন। একই সাথে রোগী বেড়েছে উপজেলায়ও, সেখানে নতুনভাবে শনাক্ত হয় ১২১ জন। এই নিয়ে চট্টগ্রামে করোনা রোগীর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো আট হাজার ৪৮০ জনে। যাদের মধ্যে পাঁচ হাজার ৮৩৯ জন নগরের ও দুই হাজার ৬৪১ জন বিভিন্ন উপজেলার।

একইসাথে, গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় চট্টগ্রামে আরও দুই জনের মৃত্যু হয়েছে, দুজনই উপজেলার। ফলে, এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন মোট ১৭৩ জন, যাদের মধ্যে ১৩৩ জন নগরের ও ৪০ জন উপজেলার বাসিন্দা। এদিন করোনা জয় করেছেন আরও ৫৯ জন। তাতে করে চট্টগ্রামে করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা এখন ১০২৪।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, চট্টগ্রামের সরকারি চারটি ও বেসরকারি দুটি ল্যাব এবং কক্সবাজারের একটি ল্যাব মিলিয়ে মোট ১৫৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় আরও ৪৪৫ জনের দেহে করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে নগরের ৩২৪ জন এবং বিভিন্ন উপজেলার ১২১ জন। চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ নমুনা পরীক্ষা ও শনাক্তের রেকর্ড এটি।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-তে ২১৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩১ জনের দেহে করোনা পজিটিভ মিলেছে। যাদের মধ্যে ১৮ জন নগরের ও ১৩ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি (সিভাসু) ল্যাবে ২৩৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনাভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গেছে মাত্র ৮৩ জনের শরীরে। যাদের ২৪ জন নগরের ও ৫৯ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে দিনের সর্বাধিক ৪৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ১২১ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়, যাদের মধ্যে ১০৭ জন নগরের ও ১৪ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৫১ জনের নমুনা পরীক্ষা করিয়ে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন ৪৫ জন। যাদের ২২ জন নগরের ও বাকি ২৩ জন বিভিন্ন উপজেলার।

অন্যদিকে, বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১২৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৩ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে নগরের ২০ জন ও উপজেলার ৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় টানা দ্বিতীয় দিনের মতো সবেচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয় শেভরণ ল্যাবে। সেখানে ২৮০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে দিনের সর্বোচ্চ ১৪১ জনের করোনা শনাক্তের কথা জানা যায়। আক্রান্তদের মধ্যে ১৩৩ জন নগরের ও ৮ জন উপজেলার বাসিন্দা।

এছাড়া, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ১০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১ জন উপজেলার করোনা রোগী মিলেছে।

উপজেলা পর্যায়ে নতুন করোনা শনাক্ত ১২১ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী পাওয়া যায় মিরসরাই উপজেলায়। সেখানে ২৬ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। হাটহাজারী উপজেলায় পাওয়া যায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২২ জন। এছাড়া সীতাকুণ্ডে ১৪ জন, পটিয়ায় ৯ জন, সাতকানিয়া, চন্দনাইশ ও ফটিকছড়িতে ৭ জন করে, আনোয়ারা, বোয়ালখালী ও রাউজানে ৬ জন করে, সন্দ্বীপে ৫ জন, লোহাগাড়ায় ৪ জন এবং বাঁশখালীতে ২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm