চট্টগ্রামে পিকআপ চালককে ছুরি মেরে খুন

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে এক পিকআপ চালককে ছুরি মেরে হত্যার পর রেললাইনে ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা। পরে পুলিশ এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে৷ নিহতের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সকালে পূর্বাঞ্চল রেলের ঢাকা-চট্টগ্রাম রেললাইনের হিঙ্গুলী খান সিটি সেন্টার সংলগ্ন স্থান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

তৌহিদুল ইসলাম খোকন (৩০) উপজেলার হিঙ্গুলী ইউনিয়নের আজমনগর গ্রামের মৃত হাসেম ড্রাইভারের ছেলে।

নিহতের স্ত্রী সানজিদা আক্তার বলেন, বুধবার রাতে একই এলাকার শাহাজাহান মেম্বারের বাড়িতে বন্ধুর বোনের গায়ে হলুদে যান তৌহিদ। সেখানে যাওয়ার আগে স্থানীয় বখাটে মোতালেব, আমজাদ, রাসেল তাদের জন্য ইয়াবা নিতে বার বার ফোন করেন। কিন্তু তিনি রাজি হননি। রাতে গায়ে হলুদে গিয়ে আর ফেরেননি। সকালে রেললাইনে মরদেহ পাওয়া গেছে।’

নিহতের বড় ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ভাই খোকন পিকআপ চালিয়ে সংসার চালাতো। বুধবার রাতে বাড়ি থেকে বের হয়ে কয়েকজন বন্ধু মিলে খান সিটি সেন্টারে চা খায়। পরে তাকে একাধিক ফোন পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার সকালে খান সিটি সেন্টারের পেছনে রেলাইনের উপর তার লাশ পাওয়া যায়।

খোকনের এক বছর বয়সী কন্যা সন্তান ও সাত বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে বলে জানান তিনি।

হিঙ্গুলী ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান বলেন, ‘সকালে খবর পাই, খোকন মারা গেছেন। কে বা কারা তাকে খুন করে রেললাইনে ফেলে গেছে। পুলিশে খবর দিলে তারা এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।’

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (মিরসরাই সার্কেল) মনিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। নিহতের শরীরের একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে খুন করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে সন্দেহভাজন আটক করা হয়েছে। খুনের ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান মনিরুল ইসলাম।

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!