চট্টগ্রামে নবজাতক মেয়েটি ফিরে পেল হাসপাতাল পালানো মায়ের কোল

1

হাসপাতালের শয্যায় কন্যাসন্তানটি জন্ম নেওয়ার পরপরই তাকে ফেলে পালিয়ে যান বাবা ও মা। হাসপাতালে ভর্তির সময় বাবা ও মায়ের যে ঠিকানা দেওয়া হয়েছিল সেটি ছিল ভুয়া। ফলে নবজাতকের বাবা-মায়ের খোঁজে পুলিশ ও পৌর প্রশাসনের লোকজন অনেক অনুসন্ধান চালিয়েও শুরুতে বিফল হয়। কিন্তু এরপরই পুলিশ হঠাৎ করে হদিস পায় বাবা-মায়ের। এরপর ২৪ ঘন্টার মধ্যেই মায়ের কোলে ফিরেছে সেই নবজাতক।

রোববার (১ আগস্ট) রাত ১০টায় নবজাতক ফেলে বাবা-মায়ের পালানোর এই ঘটনা ঘটে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। আবার সেই মাকে (২৩) খুঁজে এনে সোমবার (২ আগস্ট) রাত ৯টায় তার হাতেই তুলে দেওয়া হল নবজাতককে। তার আগে মাসহ পরিবারের অন্যদের কাছ থেকে নেওয়া হয় অঙ্গীকারনামা।

জানা গেছে, বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির সময় রেজিস্টারে নবজাতকের বাবার নাম সুবোধ বড়ুয়া বলে উল্লেখ করা হয়। ঠিকানা হিসেবে লেখা হয় বাঁশখালী পৌরসভার জলদী ২ ওয়ার্ড।

পালানোর ঘটনা জানার পর নবজাতকের পিতামাতার খোঁজে পুলিশ ও পৌর প্রশাসনের লোকজন বাঁশখালীর ২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জলদী বড়ুয়াপাড়ায় এলাকা অনেক খোঁজাখুজি করেও কাউকে শনাক্ত করতে পারেনি।

উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিউর রহমান মজুমদার জানান, বাবা-মাকে না পেয়ে ওই নবজাতক কন্যাসন্তানটিকে হাসপাতালের হেফাজতে বাঁশখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত এক নার্সের তত্ত্বাবধানে রাখা হয়। ওই নার্স দম্পতি নবজাতকটিকে দত্তক নেওয়ার আগ্রহও প্রকাশ করেন। তবে আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া যেহেতু দত্তক দেওয়া সম্ভব নয়, তাই নবজাতক শিশুটির প্রকৃত পিতা-মাতার কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চলতে থাকে।

বাঁশখালী থানার পুলিশ পরিদর্শক সফিউল কবির বলেন, ‘বিষয়টি জানার পরে থানায় একটি জিডি হয়। পরে পুলিশ ওই মাকে খুঁজে পেয়ে হাসপাতালে নেওয়ার পর মায়ের কোলেই ফিরিয়ে দেয়া হয় ওই নবজাতককে।’

জানা গেছে, ডেলিভারির জন্য গর্ভবতী ওই মাকে হাসপাতালে এনেছিলেন যে রিকশাচালক, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেই শেষপর্যন্ত সেই মায়ের হদিস মেলে।

তবে কেন ডেলিভারির পরপরই নবজাতককে ফেলে পালিয়ে গেলেন জন্মদাতা বাবা-মা— এই প্রশ্নের উত্তর মেলেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, কন্যাসন্তান জন্মদানের কারণে এমনটি হয়ে থাকতে পারে।

বাংলাদেশের কুসংস্কারাচ্ছন্ন অনেক মানুষ এখনও মনে করেন, কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়া মানে সংসারে পিছুটান চলে আসা। কন্যাসন্তান জন্ম হতে পারে সেই দুশ্চিন্তায় অনেকে সন্তান নেওয়া থেকে বিরত থাকেন। এ ধরনের কুসংস্কার চলে এসেছে আধুনিক এই সমাজেও। বিত্তশালী ও প্রবাসী দম্পতিদের অনেকেই এখনও পুত্রসন্তানের আশা করেন বেশি।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

1 মন্তব্য
  1. উজ্জ্বল বিশ্বাস বলেছেন

    cÖkvm‡bi mn‡hvwMZvq beRvZK‡K †`qv n‡q‡Q `ËK, al©‡Ki weiæ‡× nqwb gvgjv
    evukLvjx‡Z nvmcvZv‡j mšÍvb cÖm‡ei ci al©K e¨emvqx
    awl©Zv M„nea~i KjsK iUv‡”Q PwiÎnxbv
    Qwe mshy³
    D¾¡j wek¦vm, evukLvjx (PÆMÖvg) cÖwZwbwa t
    evukLvjx‡Z av‡ii UvKv ‡diZ †`qvi AcivMZvq GK `wi`ª M„nea~ 10 gvm a‡i GK e¨emvqxi al©‡Yi wkKvi n‡q‡Q| nvmcvZv‡j mšÍvb cÖm‡ei ci beRvZK wkï‡K †i‡L IB M„nea~ cvwj‡q hvevi ci NUbvwU cÖKvk n‡q‡Q| beRvZK‡K cÖkvm‡bi mn‡hvwMZvq `ËK w`‡jI al©‡Ki weiæ‡× gvgjv nqwb|
    Rvbv †M‡Q, nvmcvZvj KZ…©c‡ÿi mvaviY Wv‡qwii ci evukLvjx _vbv cywjk beRvZ‡Ki gvÕ‡K evwo †_‡K G‡b MZ †mvgevi (2 AvMó) iv‡Z IB beRvZK‡K MwQ‡q w`‡q‡Q| awl©Zv M„nea~ Kjs‡Ki `vq Gov‡Z Ges al©‡Ki ¯^Rb‡`i Pv‡ci gy‡L beRvZK‡K MZKvj g½jevi (3 AvMó) †fv‡i `ËK w`‡q w`‡q‡Q| GB wb‡q GjvKvq †Zvjcvo Pj‡Q| al©K e¨emvqx †LvKb eo–qv cÖKv‡k¨ Nyi‡Q Ges awl©Zvi bvbvgywL KjsK iwU‡q awl©Zv‡K Amnvq K‡i Zzj‡Q| GB cvk©weK NUbvwU N‡U‡Q evukLvjx †cŠimfvq DËi Rj`x eo–qv cvov MÖv‡g|
    m‡iRwgb Ny‡i evukLvjx †cŠimfvi DËi Rj`x eo–qv cvovi ¯’vbxq‡`i gva¨‡g Rvbv †M‡Q, awl©Zv M„nea~i `wi`ª ¯^vgx 8 eQi Av‡M gvj‡qwkqv †M‡Qb| we‡`‡k †M‡jI †Zgb UvKv cqmv cvVv‡Z cv‡ib bv| wewfbœ GbwRI †_‡K avi‡`bv wb‡q GK †Q‡j I GK †g‡qi msmvi Pvjvq cÖevmxi GB `wi`ª M„nea~| †eovi Kzu‡oN‡i Zv‡`i emevm|
    awl©Zv M„nea~ e‡jb, cÖvq GK eQi Av‡M ¯’vbxq abvX¨ gyw`i †`vKvb e¨emvqx †LvKb eo–qvi KvQ †_‡K 36 nvRvi UvKv avi wbB| IB UvKv avi †bqvi ci †_‡K Avgv‡K †LvKb eo–qv bvbv cÖ‡jvf‡b Ges Pv‡ci gy‡L †`vKv‡b Ges Avgvi N‡i G‡m 10 gvm a‡i al©Y K‡i Avm‡Q| IB K_v KvD‡K ej‡j eo ai‡Yi ÿwZ Ki‡e e‡j fq †`Lvq| Gi g‡a¨ Mf©eZx© nevi NUbv Rvbv‡jI mšÍvb bó K‡i †djvi Pvc †`q| MZ iweevi 1 AvMó evukLvjx nvmcvZv‡j ivZ 9Uvq mšÍvb cÖme Ki‡j nvmcvZv‡ji GK AvZ¥xq bv‡m©i K_vgZ mšÍvbwU nvmcvZv‡j †i‡L evwo P‡j Avwm| Z‡e IBw`b Avgvi AvZ¥xq IB bvm© nvmcvZv‡j wQ‡jb bv| c‡i cywjk Avgv‡K nvmcvZv‡j wb‡q mšÍvbwU MwQ‡q †`q| Avwg †jvKj¾vi f‡q Zv‡K `ËK wn‡m‡e w`‡q w`B|
    evukLvjx nvmcvZv‡ji ¯^v¯’¨ I cwievi cwiKíbv Kg©KZ©v †gv. kwdDi ingvb gRyg`vi e‡jb, ÔnvmcvZv‡j D³ M„nea~ f~wgô mšÍvb †d‡j cvwj‡q hvevi ci _vbvq wRwW Kwi| IB wRwWi †cÖwÿ‡Z cywj‡ki mnvqZvq mšÍvbwU‡K Avevi gvÕi Kv‡Q †mvgevi iv‡Z n¯ÍvšÍi K‡iwQ|Õ
    ¯’vbxq evukLvjx †cŠimfvi KvDwÝji Zcb eo–qv e‡jb, Ô cÖevmx M„nea~i mšÍvb cÖm‡ei wcQ‡b RwoZ e¨w³wU wPwýZ n‡q‡Q| NUbvwU KjswKZ e¨vcvi nIqvq evukLvjx Dc‡Rjv cÖvYx m¤ú` Kg©KZ©v mgiÄb eo–qvi mn‡hvwMZvq †jvnvMov Dc‡Rjvi cyuwUwejv MÖv‡gi BZvwj cÖevmx mygb eo–qvi ¯¿x KwYKv eo–qv‡K beRvZKwU `ËK wn‡m‡e †`qv n‡q‡Q|Õ Z‡e GB cÖwZ‡e`K‡K Dc‡Rjv cÖvYx m¤ú` Kg©KZ©v mgiÄb eo–qvI mšÍvbwU `ËK cÖ`v‡b mn‡hvwMZvi K_v ¯^xKvi K‡i‡Qb|
    evukLvjx _vbvi Gm AvB †gv. gvmy` e‡jb, Ô 8 eQi a‡i we‡`‡k _vKv cÖevmx ¯¿xÕi mšÍvb cÖm‡ei NUbvwU KjswKZ e¨vcvi ZvB mšÍvb †i‡L `wi`ª M„nea~ nvmcvZvj †_‡K cvwj‡q‡Q| c‡i M„nea~‡K mšÍvbwU MwQ‡q †`qv n‡q‡Q| M„nea~ wjwLZ Awf‡hvM bv Kivq Avi †Kvb c`‡ÿc †bqv nqwb|Õ
    awl©Zv M„nea~i Awfhy³ e¨w³ †LvKb eo–qv e‡jb, Ô Avgvi mv‡_ IB M„nea~i †Kvb †hvMv‡hvM wQj bv| IB M„nea~i mv‡_ A‡bK cyiæ‡li ‡gjv‡gkv Av‡Q| wb‡Ri PwiÎnxbZv XvK‡Z Avgvi bvg ej‡Q|Õ

    Õ# 03/08/2021
    D¾¡j wek¦vm
    evukLvjx c«wZwbwa, PÆM«vg|
    01713631420/01821707270

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm