চট্টগ্রামে দেড় বছরে ট্রেন দুর্ঘটনায় মারা গেছে ৪৩ জন

১টি ঘটনায় পরিবারের মামলা, বাকিগুলো পুলিশ বাদি

0

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রাম বিভাগে থামছে না ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু। ট্রেনের সঙ্গে অন্য গাড়ির সংঘর্ষ ছাড়াও অসতর্কভাবে ভ্রমণ, বেখেয়ালে রাস্তা পারাপারসহ বিভিন্ন কারণে প্রায়সময় ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটছে। এরমধ্যে গত দেড় বছরে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রাম বিভাগে ট্রেনের সঙ্গে অন্য গাড়ির সংঘর্ষ ও কাটা পড়ে মারা গেছে ৪৩ জন। কিন্তু এসব ঘটনার মাত্র একটিতে মামলা করা হয়েছে পরিবারের পক্ষ থেকে। বাকিগুলো গভর্নমেন্ট রেলওয়ে পুলিশ (জিআরপি) বাদি হয়ে অস্বাভাবিক মৃত্যু বা অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা করেছে।

জিআরপি থানা পুলিশের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২১ সালে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলে ইউডি মামলা লিপিবদ্ধ করা হয় ৬১টি। এরমধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগে ট্রেনের সঙ্গে অন্য গাড়ির সংঘর্ষ ও কাটা পড়ে নিহত ২৯ জনের মামলাও রয়েছে।

২০২২ সালের জুন মাস পর্যন্ত চট্টগ্রাম পূর্বাঞ্চলে ইউডি মামলা হয়েছে ৩০টি। এরমধ্যে ট্রেনের সঙ্গে অন্য গাড়ির সংঘর্ষ ও কাটা পড়ে চট্টগ্রাম বিভাগে মারা যাওয়া ১৪ জনের মামলা আছে।

তবে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের বড়তাকিয়ায় ট্রেনের সঙ্গে মাইক্রোবাসের সংঘর্ষের ঘটনায় শুধুমাত্র পরিবার বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছে।

গত ২৯ জুলাই ওই সংঘর্ষের ঘটনায় প্রথমে ১১ জন নিহত হলেও পরে হাসপাতালে আরও দু’জনের মৃত্যু হয়। এরপর নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে দুটি মামলা করলে গ্রেপ্তার হন গেটকিপার সাদ্দাম হোসেন।

Yakub Group

এর আগে গত ২২ জুন রাত ১টায় ১০মিনিটে ঢাকাগামী তূর্ণা নিশিথা এক্সপ্রেস ও বারইয়ারহাটগামী বালুভর্তি ডাম্পারের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় একজন নিহত হলেও পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়নি।

এছাড়া চট্টগ্রামে গত দেড় বছরে বড় ঘটনার মধ্যে ছিল পাহাড়তলীর ঝাউতলার ক্রসিংয়ের ডেমু ট্রেন-সিএনজি অটোরিকশা ও বাসের ত্রিমুখি সংঘর্ষ। ২০২১ সালের ৪ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় নগরীর খুলশী থানার ঝাউতলা রেলক্রসিং এলাকায় এ সংঘর্ষে মনিরুল ইসলাম নামের এক ট্রাফিক পুলিশ সদস্যসহ ৩ জন নিহত হন। ওই ঘটনায় আহত হন প্রায় ১০ জন। কিন্তু এত বড় ঘটনার পরও নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়নি। পরে ওই ঘটনায় রেলওয়ে পুলিশ বাদি হয়ে মামলা করলে গ্রেপ্তার করা হন গেটকিপার আশরাফুল আলমগীর ভূঁইয়া।

চট্টগ্রাম জেলা রেলওয়ে পুলিশের এসপি মো. হাসান চৌধুরী বলেন, ‘নিহতের পরিবার মামলা করা থেকে বিরত থাকে। ফলে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা রেকর্ড করে। মামলার বাদী হওয়া ভয়ের কিছু নয়। এক্ষেত্রে মানুষের সচেতনতা জরুরি।’

ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm