চট্টগ্রামে জন্মসনদ জালিয়াতির ঘটনায় গ্রেপ্তার নির্বাচন অফিসের সেই পিয়ন

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভুয়া জন্ম নিবন্ধনের ঘটনায় জয়নাল আবেদীন নামের থানা নির্বাচন অফিসের এক পিয়নকে গ্রেপ্তার করেছে সিএমপির কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। এর আগে রোহিঙ্গাদের অবৈধভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) তৈরি করে দেওয়ার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এরপর ২০১৯ সালে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় তাকে।

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) রাতে কোতোয়ালী থানা এলাকা থেকে জয়নালকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বাড়ি চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায়।

মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানান কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আসিফ মহিউদ্দিন।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আসিফ মহিউদ্দিন বলেন, ‘জয়নাল আবেদীনের বিরুদ্ধে জাতীয় পরিচয়পত্র ও এনআইডি জালিয়াতির ঘটনায় কোতোয়ালী থানায় দুটি মামলা তদন্তাধীন আছে।’

তিনি বলেন, ‘এ পর্যন্ত জালিয়াতির মাধমে ৫০টির বেশি জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করা হয়েছে। তার মতো একাধিক চক্র সারাদেশে এ অবৈধ কার্যক্রমে জড়িত আছে। প্রতিটি ভুয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে গড়ে ১৫০০-১৮০০ টাকা নিয়েছে। এছাড়াও রোহিঙ্গাদেরকে বাংলাদেশের জন্ম নিবন্ধন সনদসহ জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সরবরাহকারী চক্রের একজন সক্রিয় সদস্য জয়নাল।’

এর আগে সনদ জালিয়াতির ঘটনায় ২৩ জানুয়ারি পতেঙ্গা এলাকা থেকে চারজনকে গ্রেপ্তার করে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। পরে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত সাত থেকে আট মাসে পাঁচ হাজারের বেশি জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করেছে এই চক্র।

বিএস/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!