চট্টগ্রামে কাউন্সিলর অফিসে ঘুষ ছাড়া মেলে না সনদ, সত্যতা পেল দুদক

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ১১, ২৫ ও ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসে ওয়ারিশান সনদ দেওয়ার বিপরীতে ঘুষ নেন অফিসের দুই কর্মচারী। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান পরিচালনা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। অভিযানে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে দুদক।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. এনামুল হকের নেতৃত্ব এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

দুদক জানায়, সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড কাউন্সিলর হুরে আরা বেগমের অফিসের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করে দুদক এনফোর্সমেন্ট টিম। ভুক্তভোগীর লোকজনের কাছ থেকে ওয়ারিশান সনদ দেওয়ার বিপরীতে ঘুষ নেন অফিস সহায়ক শাহেদ ও জসিম। এমন তথ্য ঘটনাস্থলে গিয়ে দুদকের কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রথমে চুপ থাকলে শাহেদ ও জসিম। পরে ভুক্তভোগীর রেফারেন্সসহ প্রমাণ দিলে বকশিস নেওয়ার কথা স্বীকার করেন তারা।

তবে এ বিষয়টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হুরে আরা বেগম (বিউটি) জানেন না বলে দুদকের কাছে দাবি করেছেন অভিযুক্ত দু’জন।

দুদক আরও জানায়, পরে এ বিষয়টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হুরে আরা বেগমকে (বিউটি) জানানো হয়। অফিসের সহায়ক জসিম ও শাহেদ সনদের বিপরীতে টাকা নেওয়ার বিষয়ে তিনি অবগত নন বলে জানান।

Yakub Group

অভিযান পরিচালনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের উপপরিচালক মো. নাজমুছ সাদাত। তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার অভিযোগের বিষয়টি প্রতিবেদন তৈরি করে দুদক কমিশন বরাবরে পাঠানো হবে। কমিশনের সিদ্ধান্তে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

এমএ/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm