s alam cement
আক্রান্ত
১০২৪১৫
সুস্থ
৮৬৮৫৬
মৃত্যু
১৩৩১

চট্টগ্রামে করোনা শনাক্ত ১২ শতাংশে নেমে এল বহুদিন পর

0

চট্টগ্রামে গত অন্তত একমাসে করোনার নমুনা পরীক্ষায় সর্বনিম্ন শনাক্ত হল সোমবার (১৬ আগস্ট)। মাত্র গতকাল রোববারও করোনা শনাক্তের হার ২১ শতাংশে দাঁড়ালেও একদিনের মাথায় সেই হার কমে দাঁড়াল মাত্র ১২ শতাংশে। আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা অবশ্য বেড়েছে দুটি।

সোমবার (১৬ আগস্ট) পর্যন্ত সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় মাত্র ২৩০ জনের নমুনায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হলে চট্টগ্রামে মোট করোনারোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৫ হাজার ৪৪ জনে। আর এই একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের— যাদের ২ জন চট্টগ্রাম নগরের এবং বাকি ৫ জন উপজেলার।

সোমবার (১৬ আগস্ট) মধ্যরাতে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের রিপোর্টে বলা হয়েছে, নগরীর ৭টি ল্যাব ও এন্টিজেন টেস্টে গত ২৪ ঘন্টায় ১ হাজার ৭৮৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নতুন করে ২৩০ জন করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। গত অন্তত একমাসে এটিই সর্বনিম্ন শনাক্ত।

নতুন শনাক্তদের মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরে রয়েছে ১৬৩ জন এবং ১৪ উপজেলায় ৬৭ জন। উপজেলায় আক্রান্তদের মধ্যে বোয়ালখালীতে সর্বোচ্চ ২১ জন, ফটিকছড়িতে ১৭ জন, সাতকানিয়ায় ৪ জন, পটিয়ায় ৪ জন, আনোয়ারায় ২ জন, মিরসরাইয়ে ২ জন, হাটহাজারীতে ২ জন, রাউজানে ১ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ১ জন, লোহাগাড়ায় ১ জন এবং সন্দ্বীপে ১ জন। এদিন সীতাকুণ্ড ও বাঁশখালীতে কোনো রোগী মেলেনি।

চট্টগ্রাম জেলায় করোনাভাইরাসে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা এখন ৯৫ হাজার ৪৪ জন। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের বাসিন্দা ৬৯ হাজার ৭৭৫ জন এবং ১৪ উপজেলার ২৫ হাজার ২৬৯ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম মহানগরে আরও ২ জনের মৃত্যু হল। আর উপজেলায় মারা গেলেন ৫ জন। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১২৮ জনে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের ৬৪৯ জন ও উপজেলার ৪৭৯ জন।

ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস ল্যাবে (বিআইটিআইডি) ৯৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ৩৮ ও উপজেলার ২৮ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৩২৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ৫৩ জন ও উপজেলার ২২ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়।

এদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাব, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাব এবং কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি।

অন্যদিকে ১৮টি এন্টিজেন টেস্টে উপজেলার ৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

এদিকে বেসরকারি ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির মধ্যে আগ্রাবাদের মা ও শিশু হাসপাতালে ২৩টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৬ ও উপজেলার দুইজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। বেসরকারি শেভরন ল্যাবে ৯৩টি নমুনার মধ্যে কেবল উপজেলার একটি নমুনার ফলাফল পজিটিভ আসে।

এছাড়া বেসরকারি মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ৩৫টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ১১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। ইপিক হেলথ কেয়ারে ১০৭টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৩৪ ও উপজেলার ৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। ইমপেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১৯৮টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ২১ ও উপজেলার চারজনের নমুনার ফলাফল পজিটিভ আসে।

সিপি

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm