চট্টগ্রামে করোনায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

0

করোনায় আগেরদিন ৪ জনের মৃত্যু দেখেছিল চট্টগ্রাম। গত ২৪ ঘণ্টায় সেটি নেমে এসেছে ১ জনে। তবে এই সময়ে বেড়েছে শনাক্ত। নতুনভাবে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১১৬ জনের শরীরে। আক্রান্তদের মধ্যে ৬৯ জন নগরের, বাকি ৪৭ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৩ হাজার ১৬৯ জন। এদের মধ্যে নগরের ৪২ হাজার ৩৮৬ জন এবং বিভিন্ন উপজেলার ১০ হাজার ৭৮৩ জন। আর মৃত্যু গিয়ে দাঁড়াল ৬০৯ জনে; যাদের মধ্যে ৪৩৮ জন নগরের এবং ১৭১ জন উপজেলার বাসিন্দা।

শনিবার (২৯ মে) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের সরকারি-বেসরকারি ৭টি ল্যাব এবং কক্সবাজারের ১টি ল্যাব মিলে ৯১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৯৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে করোনা শনাক্ত হয় দিনের সর্বোচ্চ ৪৮ জনের দেহে। এদের মধ্যে নগরের ১৭ জন এবং উপজেলার ৩১ জন।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ২০৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে শনাক্ত হয় ২৩ জন। যাদের মধ্যে ২০ জন নগরের, বাকি ৩ জন উপজেলার।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ২৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জন করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়। এদের মধ্যে ৫ জন নগরের এবং ২ জন উপজেলার অধিবাসী।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ১৭০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ১৯ জন এবং উপজেলার ৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

এদিন চট্টগ্রামের বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাব, পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) কারও নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৭৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে উপজেলার ৪ জনের করোনা শনাক্ত পাওয়া যায়।

শেভরন ল্যাবে ১৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ১ জনের দেহে করোনার বিষ পাওয়া যায়।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল সেন্টার ল্যাবে ১৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ৫ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ১৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২ জন করে নগর ও উপজেলার ৩ জন রোগী পাওয়া যায়।

উপজেলায় শনাক্ত ৪৭ জনের মধ্যে হাটহাজারী উপজেলাতেই শনাক্ত হয়েছেন ১৭ জন। এছাড়া, ফটিকছড়িতে ১১ জন, বাঁশখালীতে ৫ জন, রাউজানে ৪ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ৩ জন, সীতাকুণ্ড ও মিরসরাইয়ে ২ জন করে এবং আনোয়ারায় ১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়।

এমএহক

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm