চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে ইউপি নির্বাচন স্থগিত করলেন সিইসি!

0

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার দীর্ঘাপাড় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন। একজন প্রার্থীকে নির্বাচনের ফরম জমা দিতে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগে এই নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, সরাসরি নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া এক প্রার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের হস্তক্ষেপে এই নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।

আগামী ১৫ জুন সন্দ্বীপের এই ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, এই নির্বাচনের জন্য চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও শেষ পর্যন্ত জমা দিয়েছেন শুধুই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল কাশেম। গত ১৭ মে এই ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল।

বৃহষ্পতিবার (১৯ মে) নির্বাচন কমিশনের উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ১৫ জুন অনুষ্ঠিতব্য সন্দ্বীপ উপজেলার দীর্ঘাপাড় ইউনিয়নের নির্বাচনের লক্ষ্যে ঘোষিত তফসিল স্থগিত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।

Yakub Group

এই নির্দেশনা মোতাবেক এরমধ্যেই দীর্ঘাপাড় ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিত করে দেয়া হয়েছে বলে চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন দীর্ঘাপাড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সন্দ্বীপ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএমএ কাদের।

কি কারণে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘সেখানকার কোনো একজন প্রার্থী নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেছেন যে তাকে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ফরম জমা দিতে বাঁধা দিয়েছে কিছু সন্ত্রাসী। তার প্রেক্ষিতেই কমিশন এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। তার অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

কোন প্রার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে−এমন প্রশ্নের জবাবে জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘এটি তারা কমিশনে অভিযোগ করেছেন। আমাদের কাছে অভিযোগ করেননি। আমরা এখনো নামটা জানি না।’

দীর্ঘাপাড়ে কয়জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিল এবং কতজন জমা দিয়েছেন−এমন প্রশ্নের জবাবে রিটার্নিং কর্মকর্তা এসএমএ কাদের বলেন, ‘মোট ৩ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন, জমা দিয়েছেন শুধু একজন।’

প্রসঙ্গত, বর্তমান সিইসি কাজী হাবীবুল আওয়ালের বাড়ি চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলায়। তার দায়িত্ব গ্রহণের পর সন্দ্বীপ উপজেলায় এটি প্রথম কোনো নির্বাচন ছিল।

এআরটি/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm