চট্টগ্রামের পুলিশ রিকশা চুরি করতে গিয়ে নোয়াখালীতে ধরা

চট্টগ্রামের বাসিন্দা এক পুলিশ সদস্য যাত্রী সেজে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চুরি করে পালানোর সময় নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ধরা পড়লেন স্থানীয়দের হাতে। পরবর্তীতে তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিকে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চর ফকিরা ইউনিয়নের বটতলায় এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় আটক জিয়া উদ্দিন পারভেজ (২৩) নোয়াখালী পুলিশ লাইন্সে পুলিশ কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার হাইতকান্দি কচুয়া গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জিয়াউদ্দিন পারভেজ গত ৩ ফেব্রুয়ারি ১০ দিনের নৈমিত্তিক ছুটিতে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের কচুয়া গ্রামের বাড়িতে গিয়েছিলেন। ছুটিতে থাকা অবস্থায় রোববার রাত ৯টার দিকে তিনি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের বাংলাবাজার থেকে একটি অটোরিকশা ভাড়া নেন। একপর্যায়ে ওই অটোরিকশাযোগে পার্শ্ববর্তী চরফকিরা ইউনিয়নের বটতলা এলাকায় গিয়ে অটোচালকের চোখে-মুখে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে রিকশা ছিনিয়ে নেন।

এরপর রিকশা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা বাজার এলাকায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। ওই সময় ভুক্তভোগী অটোচালকের চিৎকারে স্থানীয়রা জিয়া উদ্দিনকে আটক করে।

ঘটনাস্থলের পাশে থাকা সেনাক্যাম্পের একাধিক সদস্য ওই সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন এবং অভিযুক্ত ব্যক্তির বক্তব্য শুনে পুলিশে খবর দেন। এ সময় জিয়া উদ্দিনের সঙ্গে থাকা ব্যাগে পুলিশের ইউনিফর্ম ছিল।

খবর পেয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাজ্জাদ রোমন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন রাত ১২টার দিকে। সে সময় স্থানীয়রা জিয়া উদ্দিনকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আকরামুল হাসান জানান, চুরির ঘটনায় জিয়াউদ্দিনকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং এ বিষয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ইতোমধ্যে এ ঘটনার একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!