চট্টগ্রামের তিন উপজেলার ভোটে শীর্ষ পদে জয়ের ব্যবধান ১০ হাজারের ওপরে

পটিয়ায় দিদার, বোয়ালখালীতে জাহেদুল ও চন্দনাইশে জসিম

চট্টগ্রামের তিন উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে বিজয়ীদের প্রত্যেকেই ১০ হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধান গড়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে পরাজিত করেছেন। এই তিন উপজেলা হচ্ছে চট্টগ্রামের পটিয়া, বোয়ালখালী ও চন্দনাইশ। এর মধ্যে নানা বিতর্ককে সঙ্গী করেও চন্দনাইশের নতুন উপজেলা চেয়ারম্যান ১৬ হাজার ভোটের ব্যবধান গড়েছেন। স্রোতের বিপরীতে হেঁটেও বোয়ালখালীতে বড় জয় পেয়েছেন জাহেদুল হক। অন্যদিকে অনিয়মের নানা অভিযোগের পরও পটিয়ায় যুবলীগ নেতা দিদারুল আলম বিপুল ভোট পেয়েছেন।

বুধবার (২৯ মে) এই উপজেলাগুলোতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

পটিয়ায় দিদারই জয়ী

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা নির্বাচনে ১০ হাজার ভোটের ব্যবধান গড়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন দোয়াত-কলম প্রতীকের প্রার্থী দিদারুল আলম। ১২৭টি কেন্দ্রে তিনি পেয়েছেন ৫৬ হাজার ৫৪১ ভোট। অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক পৌর মেয়র হারুনুর রশিদ আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৪৬ হাজার ১৪২ ভোট। ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনায় ৩ হাজার ৬১৫ ভোটারের একটি কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

পটিয়া উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কাউকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়নি এখন পর্যন্ত। ভাইস চেয়ারম্যান পদে উড়োজাহাজ প্রতীকের আবু ছালেহ মুহাম্মদ শাহরিয়ার পেয়েছেন ২৩ হাজার ৮৫০ ভোট। বই প্রতীক নিয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ডা. এমদাদুল হাসান পেয়েছেন ২৩ হাজার ৭৩ ভোট। অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৪ হাজার ৮৯৪ ভোট পেয়েছেন কলস প্রতীকের মাজেদা বেগম শিরু। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রজাপতি প্রতীকের সাজেদা বেগম পেয়েছেন ২৪ হাজার ৭৩১ ভোট। ব্যালট ছিনতাইয়ের অভিযোগে কাশিয়াইশ ইউনিয়নের পূর্ব পিংগলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করায় এই দুই পদে পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

জাহেদুলের বড় জয় বোয়ালখালীতে

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলা নির্বাচনে প্রায় ১১ হাজার ভোটের ব্যবধান গড়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জাহেদুল হক। হেলিকপ্টার প্রতীকের এই প্রার্থী পেয়েছেন ৩০ হাজার ৫৭৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আনারস প্রতীকের মোহাম্মদ শফিক পেয়েছেন ১৯ হাজার ১১০ ভোট।

বোয়ালখালী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়েছেন টিউবওয়েল প্রতীকের মোহাম্মদ মীর নওশাদ। তিনি পেয়েছেন ৩১ হাজার ৩১০ ভোট। তালা প্রতীক নিয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সেলিম উদ্দীন পেয়েছেন ১৪ হাজার ৪৩৮ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩১ হাজার ৩৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন ফুটবল প্রতীকের উম্মে সালমা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রজাপতি প্রতীকের শামীম আরা বেগম পেয়েছেন ২৮ হাজার ৪০১ ভোট।

বিপুল ব্যবধান চন্দনাইশে

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাচনে প্রায় ১৬ হাজার ভোটের ব্যবধান গড়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন জসিম উদ্দিন আহমেদ। মোটরসাইকেল প্রতীকের এই প্রার্থী পেয়েছেন ৩৮ হাজার ৩৯ ভোট। ঘোড়া প্রতীক নিয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আবু আহমদ চৌধুরী জুনু পেয়েছেন ২২ হাজার ৭৪ হাজার ভোট।

চন্দনাইশ উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান পদে টানা তৃতীয়বারের মতো জয়ী হয়েছেন মাওলানা সোলাইমান ফারুকী। বৈদ্যুতিক বাল্ব প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ৪৪ হাজার ৭১৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উড়োজাহাজ প্রতীকের রুপম দেব পেয়েছেন ৮ হাজার ২১৯ ভোট। অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে খালেদা আকতার চৌধুরী নির্বাচিত হয়েছেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায়।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!