চট্টগ্রামের ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

নেতার দাবি, তরুণীকে চেনেনই না

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক এইচএমএ আসিফ চৌধুরী লিমনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন এক তরুণী।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল-৪ এর বিচারক মো. জামিউল হায়দারের আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. আব্বাস।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী নারী ফেনীর নিজ বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে থাকেন। সমাজসেবামূলক সংগঠন লাইন ক্লাবে যুক্ত থাকার সুবাদে ওই ছাত্রদল নেতার সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার পরিচয় হয়। ২০২০ সালে রমজানের পর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর থেকে অভিযুক্ত আসিফ ভুক্তভুগীকে অনৈতিক সম্পর্কের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। বিশ্বাস স্থাপনের জন্য ভুক্তভোগীর মাকেও ফোন দিয়ে বিভিন্ন সময় ওই তরুণীকে বিয়ের কথা বলতেন আসিফ। পাশাপাশি ভুক্তভোগীকে মোবাইল ফোনে নিজের মায়ের সঙ্গেও কথা বলিয়ে দিতেন আসিফ।

গত ৩ সেপ্টেম্বর মায়ের সঙ্গে দেখা করানোর কথা বলে ওই তরুণীকে চট্টগ্রাম আসতে বলেন আসিফ। ভুক্তভোগী চট্টগ্রাম শহরে এলে অক্সিজেন নয়াহাট এলাকায় রাজনৈতিক বন্ধুর ব্যাচেলর বাসায় নিয়ে যান তিনি। সেখানে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসিফ। এ সময় ওই তরুণী চিৎকার করলে আসিফ পালিয়ে যান। পরে ভুক্তভোগী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করান স্থানীয়রা।

Yakub Group

এ ঘটনায় বায়েজিদ থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে পুলিশ আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন। এরপর বুধবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুন্যাল-৪ এ মামলাটি দায়ের করেন ওই তরুণী।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ছাত্রদল নেতা এইচএমএ সাইফুল চৌধুরী লিমন বলেন, ‘গত চার বছরে ওই মেয়ের সঙ্গে আমার কোনো দেখা-সাক্ষাতও হয়নি। আমি মূলত রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার।’

আইএমই/ডিজে

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm