চট্টগ্রামের ক্রিকেটারদের ক্ষোভের মুখে পিছু হটল সিজেকেএস

0

চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) বরাবরের মতোই নিজেদের খেয়ালখুশি অনুযায়ী চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার লিগে প্রতি ক্লাবের একাদশে চট্টগ্রামের বাইরের ছয় জন ক্রিকেটার থাকতে পারবে— এমন সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়ার পরই ঘটলো অভাবিত ঘটনা। এ নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন চট্টগ্রামের সব ক্রিকেটারই। অনেক সংগঠকও এমন আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ক্ষোভ ঝাড়েন।

গত ২৬ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার (সিজেকেএস) ক্রিকেট কমিটির এক সভায় হঠাৎ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, এবার চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার লিগে প্রতি ক্লাবের একাদশে চট্টগ্রামের বাইরের ছয় জন ক্রিকেটার থাকতে পারবে। অন্যদিকে প্রথম বিভাগ লিগে চট্টগ্রামের বাইরের চার জন ক্রিকেটার নেওয়া যাবে।

সিজেকেএসের আকস্মিক এই সিদ্ধান্তের পর ক্ষোভে ফেটে পড়েন চট্টগ্রামের ক্রিকেটাররা। সংগঠকদের অনেকেই অভিযোগ আনেন, চট্টগ্রামের স্থানীয় ক্রিকেটারদের উঠে আসার পথ রুদ্ধ করে দেওয়ার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের অনুরোধ জানিয়ে চট্টগ্রাম ক্রিকেট খেলোয়াড় সমিতির সভাপতি ও জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার সহিদুর রহমান ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সিরাজউদ্দিন মো. আলমগীর চিঠি দেন সিজেকেএসকে।

ক্ষোভ জানিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার আফতাব আহমেদ ফেসবুকে লিখেছেন, ‘কিছু মানুষের জন্য আজকে চট্টগ্রাম ক্রিকেটের এই পরিণতি।’

চারদিকের এই তীব্র ক্ষোভের মুখে শেষ পর্যন্ত পিছু হটেছে সিজেকেএস। বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) জরুরি সভা ডেকে নতুন নেওয়া সিদ্ধান্ত আবার বদলেছে সংস্থাটি। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রিমিয়ার লিগে প্রতি ক্লাবে চট্টগ্রামের বাইরের ক্রিকেটার থাকতে পারবে চার জন।

আগামী ২ থেকে ৬ জানুয়ারি প্রিমিয়ার ও প্রথম বিভাগ লিগে ক্রিকেটারদের দলবদল শুরু হবে। এরপর ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে লিগ। প্রিমিয়ার লিগের ১২টি দল দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে তাতে খেলবে। লিগ পর্ব শেষে দুই গ্রুপের শীর্ষ চারটি দল নিয়ে হবে সুপার ফোর পর্বের খেলা। সেখান থেকেই নির্ধারিত হবে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm