চট্টগ্রামের আকাশে বিরল চন্দ্রগ্রহণ শুরু বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে, আবার দেখা যাবে ২৬৬৯ সালে

0

৫৮০ বছরের মধ্যে দীর্ঘতম আংশিক চন্দ্রগ্রহণ ঘটবে শুক্রবার (১৯ নভেম্বর)— যা বাংলাদেশের আকাশেও দৃশ্যমান হবে। চট্টগ্রামের আকাশে এই চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে বিকেল ৫টা ১০ মিনিট থেকে। এর তিন মিনিট পর বিকেল ৫টা ১৩ মিনিট থেকে ঢাকার আকাশে দেখা যাবে এই চন্দ্রগ্রহণ। আংশিক এই চন্দ্রগ্রহণ ‘ব্লাড মুন’ নামেও পরিচিত। এ সময়ে চাঁদের কিছু অংশ পৃথিবীর ছায়ায় ঢাকা পড়ে।

আবহাওয়া অফিসের দেওয়া তথ্যমতে, চট্টগ্রামে বিকেল ৫টা ১০ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে শুরু হয়ে সন্ধ্যা ৬টা ৩ মিনিট ৩৩ সেকেন্ডে শেষ হবে চন্দ্রগ্রহণ। অন্যদিকে ঢাকায় বিকেল ৫টা ১৩ মিনিট ৪২ সেকেন্ডে চন্দ্রগ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হবে সন্ধ্যা ৬টা ৫ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে।

আকাশ পরিষ্কার থাকলে আংশিক চন্দ্রগ্রহণের শেষ অংশটুকু বাংলাদেশ থেকে দৃশ্যমান হবে জানিয়ে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আসাদুর রহমান জানান, এটি বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় শুরু হবে এবং সন্ধ্যা ৬টা ০৫ মিনিটে শেষ হবে।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার চাঁদের ৯৭ শতাংশ সূর্যের আলো থেকে বঞ্চিত হবে। আংশিক ওই গ্রহণের সময় লালচে রং ধারণ করবে চাঁদ।

এই বিশেষ আংশিক চন্দ্রগ্রহণটি ৩ ঘন্টা ২৮ মিনিট ২৪ সেকেন্ড স্থায়ী হবে, যা ৫৮০ বছরের মধ্যে দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ হবে।

আংশিক গ্রহণ দুপুর ২টা ৩৪ মিনেটে সর্বোচ্চ সীমায় পৌঁছাবে, তখন চাঁদের প্রায় ৯৭% পৃথিবীর ছায়ায় ঢেকে যাবে।

চট্টগ্রাম ও ঢাকা ছাড়াও ময়মনসিংহে বিকেল ৫টা ১১ মিনিট ৪৭ সেকেন্ডে শুরু হয়ে শেষ হবে সন্ধ্যা ৬টা ৩ মিনিট ৪৮ সেকেন্ডে। সিলেটে বিকেল ৫টা ৫ মিনিট ৩৬ সেকেন্ডে শুরু হয়ে বিকেল ৫টা ৫৪ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে শেষ হবে। খুলনায় বিকেল ৫টা ৪২ মিনিট ২৪ সেকেন্ডে শুরু হয়ে শেষ হবে সন্ধ্যা ৬টা ১১ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে।

শেষবার এত দীর্ঘ আংশিক চন্দ্রগ্রহণ ঘটেছিল ১৪৪০ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি। জ্যোতির্বিজ্ঞানে উত্সাহীদেরকে অনুরূপ ঘটনা দেখার জন্য ২৬৬৯ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

যখন চাঁদ তার পূর্ণ পর্যায়ে থাকে এবং সূর্য সম্পূর্ণরূপে চাঁদের পৃষ্ঠকে আলোকিত করে আর পৃথিবী তাদের মধ্যে থাকে তখন চন্দ্রগ্রহণের ঘটনা ঘটে। সূর্য, পৃথিবী এবং চাঁদ সুনির্দিষ্ট সারিতে থাকলে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ ঘটে, আর তা না হলে এটি আংশিক চন্দ্রগ্রহণে পরিণত হয়।

চন্দ্রগ্রহণটি ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (নাসা) ওয়েবসাইটের এই লিংক থেকে সরাসরি উপভোগ করা যাবে ।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm