চকরিয়া পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ পড়তেই বেঁকে বসলেন চারজন

না পেছালে সম্মেলনই বর্জনের ঘোষণা

কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২ সেপ্টেম্বর। দীর্ঘ ৯ বছর পর সম্মেলনের তারিখটি ঘোষণার পর সভাপতি ও সম্পাদক পদে ৭ জন প্রার্থী প্রার্থিতা ঘোষণা করেন। প্রার্থীদের পক্ষে কাউন্সিলর ডেলিগেট ছাড়াও কর্মী-সমর্থকরা দোয়া ও ভোট চেয়ে সরব হয়ে ওঠেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। কিন্তু হঠাৎ করে সেই উৎসাহে ভাটা পড়ে। যথাসময়ে (১ সপ্তাহ আগে) কাউন্সিলর তালিকা না পাওয়ার অভিযোগ তুলে সম্মেলন পেছানোর দাবি জানিয়েছেন সভাপতি ও সম্পাদক পদের চারজন প্রার্থী।

না পেছালে সম্মেলন বর্জনের ঘোষণা দিয়ে ফেসবুকে নিজ নিজ টাইমলাইনে পোস্ট দিয়েছেন সভাপতি প্রার্থী পৌর মেয়র আলমগীর চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী পৌরসভার কাউন্সিলর মুজিবুল হক মুজিব এবং সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এডভোকেট ফয়েজুল কবির ।

রোববার (২৮ আগস্ট) এসব পোস্ট প্রকাশের পর শঙ্কা ছড়িয়ে পড়ে ২ সেপ্টেম্বর সম্মেলন আদৌ হবে কিনা তা নিয়ে।

সভাপতি প্রার্থী মেয়র আলমগীর চৌধুরী বলেন, সম্মেলনের কমপক্ষে এক সপ্তাহ আগে কাউন্সিলের তালিকা প্রকাশ ও সম্ভাব্য প্রার্থীরা পাওয়ার কথা। এ তালিকা পেলেই প্রার্থীরা প্রচারণা চালাতে পারতো। কিন্তু কক্সবাজার গিয়ে নানাভাবে চেষ্টা করেও সম্মেলনের মাত্র ৪ দিন আগেও কাউন্সিলর তালিকা পাওয়া যায়নি। এ অবস্থায় সম্মেলনের তারিখ পুনঃ নির্ধারণ পূর্বক পিছিয়ে না দিলে নির্বাচনে অংশ নেওয়া সম্ভব হবে না। তালিকা নিয়ে লুকোচুরি গভীর ষড়যন্ত্র বলে মনে হচ্ছে আমার।

একই বক্তব্য দিয়েছেন পৌর আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও ফের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আতিক উদ্দিন চৌধুরী।

Yakub Group

অনুরূপ বক্তব্য দিয়েছেন অপর দুই সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মুজিব এবং ফয়েজুলও।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীরা সমস্যাটি সমাধানের জন্য আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm