চকবাজারে বন্ধ হলো নম্বরছাড়া টেম্পোর দৌরাত্ম্য, এলাকায় স্বস্তি

চট্টগ্রাম প্রতিদিনে প্রকাশিত সংবাদে প্রতিক্রিয়া

অবশেষে চকবাজার-রাহাত্তারপুলে নম্বরবিহীন টেম্পোর দৌরাত্ম্য বন্ধ হয়েছে। এতে স্বস্তি প্রকাশ করছেন এলাকার সাধারণ মানুষ।

শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় এসব অবৈধ গাড়ি বন্ধে অভিযান পরিচালনা করে ট্রাফিক বিভাগ (দক্ষিণ)। এ সময় বেশ কয়েকটি গাড়িকে ‘টো’ করা হয়। পরে অভিযানের খবর পেয়ে বাকি গাড়িগুলো মুহূর্তেই সটকে পড়ে।

‘রিট পিটিশন (নং-৬৭৫৬/২০২২)-এর পরিপ্রেক্ষিতে মহামান্য হাইকোর্ট কর্তৃক নির্বিঘ্ন ও হস্তক্ষেপমুক্ত চলাচলের আদেশপ্রাপ্ত ইউনিয়ন সদস্যদের থ্রি হুইলার অটোটেম্পু’ লেখা একটি সবুজ রঙের স্টিকার লাগিয়ে ১৫০ টেম্পো চলাচল করছিল চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন রাস্তায়। যার নেপথ্যে ছিলেন কথিত শ্রমিক লীগ নেতা নজরুল ইসলাম খোকন।

এর আগে গত ২৩ আগস্ট দৈনিক চট্টগ্রাম প্রতিদিনে ‘চট্টগ্রামের চকবাজার-রাহাত্তারপুলে নম্বরবিহীন টেম্পোর দৌরাত্ম্যে সড়কে নেমেছে দুর্ভোগ’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। সংবাদ প্রকাশের নয় দিন পর বন্ধ করা হলো নম্বরবিহীন এসব অবৈধ গাড়ি।

এলাকার বাসিন্দা নুর মোহাম্মদ বলেন, অপ্রশস্ত রাস্তায় টেম্পোগুলো উচ্চশব্দে কালো ধোঁয়া ছেড়ে বেপরোয়া গতিতে চলাচল করত। ওভারটেকিং করতে গিয়ে ঘটাতো দুর্ঘটনা। চালকদের অধিকাংশের ছিল না লাইসেন্স। এই রাস্তায় কমপক্ষে ছয়টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। অবৈধ গাড়ি চলাচল বন্ধ হওয়ায় স্বস্তি লাগছে। তবে পুনরায় যাতে চালু না হয় সে বিষয়ে প্রশাসনকে কঠোর নজরদারি রাখতে হবে।

Yakub Group

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (প্রশাসন দক্ষিণ) অনিল বিকাশ চাকমা চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘নজরুল ইসলাম খোকন নামের এক ব্যক্তি হাইকোর্টে রিট করে নম্বরবিহীন প্রায় ১৫০ টেম্পো রাস্তায় নামান। এরপর সংবাদ প্রকাশের পর এই রিটের বিরুদ্ধে ৮ সপ্তাহের স্থগিতাদেশের একটি আদেশের কপি পাওয়ার পর আমরা অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ টেম্পো চলাচল বন্ধ করে ৮টি গাড়ি আটক করেছি।’

তবে রিটের বিরুদ্ধে আপিলকারীর নাম জানাতে পারেননি এই ট্রাফিক ইন্সপেক্টর।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে চকবাজার এলাকার দায়িত্বরত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. মনিরুজ্জামান বলেন, গত শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে চকবাজার ধুনীরপুল ও রাহাত্তারপুল এলাকায় নম্বরবিহীন অবৈধ গাড়ি চলাচল বন্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় চারটি গাড়ি স্পট থেকে ‘টো’ করা হয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm