গিরিমৈত্রী ডিগ্রি কলেজ’র অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ !

0

মো. আলমগীর হোসেন, মানিকছড়ি (খাগড়াছড়ি) ঃ মানিকছড়ি গিরিমৈত্রীডিগ্রি কলেজ’র ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে পৌনে ৪ লক্ষ টাকা আত্মসাতের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন শিক্ষক-কর্মচারী । ফলে উপজেলার একমাত্র উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহতের আশংকা করছেন অভিবাবক ও শিক্ষার্থীরা।

কলেজ শিক্ষক-কর্মচারী ও অভিবাবক সূত্রে জানা গেছে, মানিকছড়ি উপজেলার একমাত্র ডিগ্রি কলেজ‘ মানিকছড়িগিরি মৈত্রী ডিগ্রি কলেজ’এর সাবেক অধ্যক্ষ মো. এনামুক হকের অবসর জনিতকারণে জ্যেষ্ঠতা লংঘন করে ৬ মাসের এডহক কমিটি গঠনের নিমিত্তে কৃষি বিজ্ঞানের প্রভাষক মংচাইঞো মারমা’কে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব অর্পন করা হয়।

তিনি দায়িত্ব গ্রহণের পর ২০১৪-১৫ ও ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে এইচএসসি পাস করা ৫৯৮জন শিক্ষার্থীর প্রশংসা পত্র বাবদ (জনপ্রতি ৩শত টাকা) ১ লক্ষ ৭৯ হাজার ৪শত টাকা বিনা রশিদে আত্মসাৎ! এছাড়া ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি বাধ্যতামূলক ফরম বিক্রি(১শত টাকা হারে)বাবদ ৯শত শিক্ষার্থীর ৯০হাজার টাকা,এসএমএস’র ভর্তি প্রক্রিয়া বাবদ টেলিটক থেকে (চট্টগ্রাম, শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক ইস্যুকৃত, তারিখ-৫.১০.২০১৬ মূলে -৯৩,৫৮২/টাকা সম্প্রতি কলেজ জাতীয়করণে পরিদর্শনকালে শিক্ষকদের পারিশ্রমিক হিসেবে কলেজ ফান্ড থেকে উত্তোলিত ১০ হাজার টাকাসহ ৩ লক্ষ ৭২হাজার ৯শত ৮২ টাকা ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাত্র ৯ মাসে আত্মসাৎ করেছেন!

ফলে সহকারী প্রভাষক ও কর্মচারী গত ৮ মার্চ কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী ফিসারের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন। এই ব্যাপারে অভিযুক্ত অধ্যক্ষের নিকট চানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন যেহেতু অভিযোগটি তদন্ততাধীন সেই কারনে আমর কোন বক্তব্য নেই। এই বিষযে জানতে চাইলে কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিনিতারানী অভিযোগ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে বলেন অভিযোগটির তদন্ত চলছে।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন