গরিবি চেহারা ছেড়ে ‘চট্টলা এক্সপ্রেস’ এখন বিলাসী আন্তঃনগর

2

মেইলের ট্রেনের গরিবি চেহারা ছেড়ে এবার বিলাসী আন্তঃনগর ট্রেনের রূপ পেল ‘চট্টলা এক্সপ্রেস’। এ নিয়ে চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে আন্তঃনগর ট্রেনের সংখ্যা দাঁড়ায় ছয়ে। এই রুটে বর্তমানে যেসব আন্তঃনগর ট্রেন সক্রিয়, সেগুলো হচ্ছে— সুবর্ণ এক্সপ্রেস, মহানগর, গোধুলী, সোনার বাংলা ও তুর্ণা নিশীথা।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) থেকে যাত্রা শুরু করা নতুন আন্তঃনগর ট্রেন ‘চট্টলা এক্সপ্রেসের’ সাপ্তাহিক বন্ধ মঙ্গলবার। এই একদিন ছাড়া প্রতিদিনই চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে ট্রেনটি চলবে। চট্টগ্রাম থেকে সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে ছেড়ে বিকাল ৩টা ৫০ মিনিটে ঢাকায় পৌঁছে। অন্যদিকে ঢাকা থেকে দুপুর একটায় ছেড়ে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে চট্টগ্রামে পৌঁছে।

ট্রেনটির মোট ৫৮০টি আসনের মধ্যে প্রথম শ্রেণীতে রয়েছে ২৭টি আসন। অন্যদিকে শোভন ও শোভন চেয়ার রয়েছে সবমিলিয়ে ৫৫৩টি। নতুন ব্যবস্থায় নামাজ ও খাবার কোচ সংযোজন করা হয়েছে।

তবে নতুন রূপে ভাড়াও বেড়েছে। শোভন টিকিটের জন্য এখন গুণতে হবে ২৮৫ টাকা (শিশু ১৯০ টাকা) ভাড়া। অন্যদিকে শোভন চেয়ারের জন্য দিতে হবে ৩৪৫ টাকা (শিশু ২৩০ টাকা) ভাড়া। আর প্রথম শ্রেণীর টিকিটের মূল্য ৪৬০ টাকা (শিশু ৩০৫ টাকা)।

Yakub Group

৯ বছর আগে ২০১১ সালে ‘চট্টলা এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি চালু হয়েছিল চট্টগ্রাম-ঢাকা রুটে।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

2 মন্তব্য
  1. ফজলুল করিম বলেছেন

    সাড়ে সাত ঘণ্টা জার্নি, নিদারুণ কষ্ট।

  2. MD IBRAHIM KHALIL বলেছেন

    ট্রেন কী ব্রাহ্মনবাড়ীয়া থামে?

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm