খাতুনগঞ্জে ফের অভিযান, ২ আড়তদারকে জরিমানা

0

সংকট, সরবরাহ কম, চালানে নিম্নমানের পেঁয়াজ ছাড়াও নানান অজুহাতে সুযোগ পেলেই পেঁয়াজের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীরা। বাজার নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রশাসন থেকে কয়েক দফা অভিযানও চালানো হয়। অভিযানে বাজার কিছুদিনের জন্য স্থিতিশীল থাকার পর প্রশাসন নিশ্চুপ থাকায় সুযোগ বুঝে আড়তদাররা আবারো বাড়িয়ে দেন পেঁয়াজের দাম।

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজের পাইকারি বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এতে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম এবং শিরীন আখতার।

আমদানি মূল্যের চেয়ে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করায় দুই আড়তদারকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। প্রতিষ্ঠান দুটি হচ্ছে- মেসার্স আজমির ভাণ্ডার এবং শাহ আমানত ট্রেডার্স।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আগের অভিযানে আমরা তাদের সতর্ক করেছিলাম। তারা মুচলেকাও দিয়েছিল কিন্তু তবুও বেশি দামে বিক্রি করায় তাদের জরিমানা করা হয়। তাছাড়া পেঁয়াজের দামে লাগাম টানতেই এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। জরিমানার পর আবারও যদি বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করে তাহলে আড়ত সিলগালা করে দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এর আগেও কয়েক দফা অভিযান পরিচালনা করায় পেঁয়াজের দাম স্থিতিশীল পর্যায়ে চলে আসে। কিন্তু এবার তারা মিয়ানমার থেকে নিম্নমানের পেঁয়াজ আসছে এমন অজুহাত দিয়ে গত দুইদিনে আবারও দাম বাড়ায় অথচ আমদানি চালানের মাত্র ৫-১০ শতাংশ পেঁয়াজ কিছুটা নিম্নমানের কিন্তু বিক্রয় অযোগ্য নয়।

এদিকে, মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) সকালেও মিয়ানমার থেকে আসা প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছিল ৭০ টাকায়। যা কেজি প্রতি ৪২ টাকায় কেনা হয়েছিল।একইভাবে ভারতীয় পেঁয়াজের দামও বাড়িয়ে দেয় ব্যবসায়ীরা। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফের অভিযানে নামে জেলা প্রশাসন।

উল্লেখ্য, মিয়ানমার থেকে আমদানি চালানে নিম্নমানের পেঁয়াজ আসার অজুহাত দেখিয়ে খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজার দাম বাড়ানোর পর এক লাফে গিয়ে খুচরো মূল্য দাঁড়ায় ৯৫ টাকা। এর আগে গত ১ অক্টোবর খাতুনগঞ্জে অভিযানের সময় পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক রাখার অঙ্গীকার করে মুচলেকা দিয়েছিলেন খাতুনগঞ্জের আড়তদার ও ব্যবসায়ী সমিতির নেতারা।
এদিকে, অভিযানের পর মিয়ানমারের পেঁয়াজ প্রতিকেজি ৫০-৫৫ টাকা এবং ভারতের পেঁয়াজ ৬৫-৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এসআর /এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন