আক্রান্ত
১৭১০
সুস্থ
১৬০
মৃত্যু
৫৪

ক্লাসিক্যাল তবলা স্টুডেন্ট ফোরামের বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান ‘পঞ্চসুর’

0

নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় ক্লাসিক্যাল তবলা স্টুডেন্ট ফোরামের প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে ‘পঞ্চসুর’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন-ওস্তাদ আজিজুল ইসলাম (একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রখ্যাত বংশীবাদক)। অনুষ্ঠানে শুদ্ধ সংগীত চর্চার গুরুত্বের উপর আলোচনা করা হয়।

তবলা তথা শাস্ত্রীয় সংগীতের চর্চা, প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে এ আয়োজন বলে জানিয়েছেন পঞ্চ সুরের আয়োজকরা। প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও অনুষ্ঠানের সভাপতি পলাশ দেব উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, গীত, বাদ্য ও নৃত্য -এ তিনের সমন্বয়ে সংগীত। আবার সুর, তাল ও লয় এ তিনের যথাযথ প্রয়োগ না ঘটলে সংগীত সৃষ্টি হয় না। শুদ্ধ সংগীতের চর্চা, প্রচার ও প্রসারের লক্ষে ২০১৭ সাল থেকে ‘ক্লাসিক্যাল তবলা স্টুডেন্টস ফোরাম চট্টগ্রামের’ যাত্রা শুরু। সংগীতের অন্যতম উপাদান বাদ্য আর বাদ্যের আধার তবলা। তবলার যথার্থ সংগত ছাড়া গানে প্রাণের সঞ্চার ঘটানো সম্ভব নয়। তাই শুদ্ধ সংগীত চর্চার গুরুত্ব অপরিসীম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফুলকির অধ্যক্ষ শীলা মোমেন, বাংলাদেশ শিশু একাডেমির জেলা শিশুবিষয়ক কর্মকর্তা নারগির সুলতানা,

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওস্তাদ আজিজুল ইসলাম বলেন, ক্লাসিক্যাল তবলা স্টুডেন্টস ফোরাম চট্টগ্রামের প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আমি আনন্দিত। তবলা তথা উচ্চাঙ্গ সংগীতের চর্চা, প্রচার ও প্রসারের লক্ষে গঠিত এ সংগঠন সংশ্লিষ্টরা তাদের ভালোবাসা ও নিষ্ঠাকে যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে নান্দনিক শিল্প চর্চায় নিজেদের সম্পৃক্ত রাখবে- এ বিশ্বাস আমার শতভাগ।

অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রামের তবলাগুরু কিরণময় চৌধুরী। উচ্চাঙ্গ সংগীত পরিবেশন করেন প্রমিত বড়ুয়া। তবলায় ছিলেন রাজীব চক্রবর্তী। সঞ্চালনায় ছিলেন সোমা বোস।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Manarat

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন