করোনা কোয়ারেন্টাইনে সৌদিফেরত সাংসদ জাফরের থোড়াই কেয়ার

প্রতিদিনই অংশ নিচ্ছেন অনুষ্ঠান-জনসংযোগে

0

করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে নিজে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার অনুরোধ জানিয়ে নিজেই সেটা মানেননি কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাফর আলম এবং তার স্ত্রী শাহেদা বেগম। ওমরা হজ পালন শেষে দেশে ফিরে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা ছিল তাদের। অথচ আসার পর থেকেই তারা জনসংযোগ, জনসমাগম— কোনো কিছুই বাদ রাখেননি। এতে দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছেন চকরিয়া-পেকুয়া আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি পবিত্র ওমরা হজ করতে সস্ত্রীক সৌদি আরবে যান চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাংসদ জাফর আলম। গত ১১ মার্চ দুপুর ১২টায় সৌদি আরবের একটি বিমানে তারা ঢাকা বিমানবন্দরে পৌঁছান। পর দিন ১২ মার্চ ঢাকা থেকে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে কক্সবাজার পৌঁছান। সেখান চকরিয়া-পেকুয়ার বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মীরা জাফর ও তার স্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। পরে সড়কযোগে নেতা-কর্মীসহ বাড়িতে ফেরেন।

চকরিয়া ফেরার পর ১৩ মার্চ মগবাজারের শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে মেয়র গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ট্রফি বিতরণ করেন তিনি। ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেন সাংসদ জাফর। এদিন সন্ধ্যায় পৌরসভা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানেও যোগ দেন তিনি। ১৮ মার্চ চকরিয়ার ডুলাহাজারায় একটি মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। ২০ মার্চ চকরিয়ার একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে স্ত্রীসহ সাংসদকে দেখা গেছে। ২১ মার্চ উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক করোনাভাইরাস বিষয়ে করণীয় বিষয়ক এক সভায় অংশ নেন তিনি।

এছাড়া সাংসদ জাফর আলম ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সদ্য প্রয়াত রুস্তম আলীর নামাজে জানাজা ও মেজবান অনুষ্ঠানেও অংশ নেন। তার অংশ নেওয়া সরকারি অনুষ্ঠানগুলোতে চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, এএসপি, ওসিসহ বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা এবং আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রাম থেকে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি বলেন, ‘এমপি সাহেব হজ থেকে এসেই নানা প্রোগ্রামে অংশ নিয়েছেন। ওনার ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন করা উচিত ছিল। কী হবে জানিনা। আল্লাহ যা করেন, তাই হবে। তবে সবাইকে সচেতন হতে হবে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম বলেন, ‘আমি ওমরা হজ করে এসেছি ৯ মার্চ। এসেই আমি ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়েছি এবং পরীক্ষা করেছি। এতে করোনা ভাইরাসের কোন নমুনা পাওয়া যায়নি।’

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন