আক্রান্ত
২৪৬০৪
সুস্থ
২০৭৪৯
মৃত্যু
৩১৮

কৈশোরে অভিনেত্রী অপর্ণা দিনরাত ছুটতেন চট্টগ্রামের ছোট বড় পূজামণ্ডপে

0

কৈশোরে অপর্ণার কাছে পূজা ছিল অনেক আনন্দের। ব্যস্ততার কারণে এখন আর সেই আনন্দ এখন আর উপভোগ করা হয়ে ওঠে না। তবু ছোটবেলার পূজার স্মৃতি খুব মনে পড়ে।

টেলিভিশন ও সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপর্ণা ঘোষের জন্ম যদিও চট্টগ্রামের রাঙ্গামাটিতে, তবে শৈশব কেটেছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে।

শৈশবের পূজার স্মৃতি নিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘পূজার সময় সারা চট্টগ্রাম শহর চষে বেড়াতাম। দিনরাত মণ্ডপে মণ্ডপে ঘুরে পূজা দেখতাম। মজার বিষয় হলো এ সময় বাসায় ফিরতে যদি দেরি হতো তবে কেউ বকা দিতো না।’

যেকোনো উৎসবকে ঘিরে ছোটদের কেনাকাটা করার রীতি সবকালেই ছিল। কিন্তু ছোটদের বেশি আনন্দের বিষয় হলো আগত উৎসবের জন্য অপেক্ষা। আর অপর্ণা ঘোষের ক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম ছিল না। অপর্ণা বললেন, ‘কয়েক মাস আগে থেকেই পূজার আনন্দ শুরু হয়ে যেত। কেন আসছে না— এটা ভেবেই আর তর সইতো না। ছোটবেলায় বাবার সঙ্গে মার্কেটে গিয়ে কেনাকাটা করতাম। তাছাড়া আত্মীয়স্বজনের কাছ থেকেও উপহার পেতাম নতুন পোশাক।’

চট্টগ্রাম শহরের কালীবাড়ি, প্রবর্তক, শিববাড়ি, জেএমসেন হলসহ ছোট বড় পূজামণ্ডপে দিনরাত বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়াতেন অপর্ণা। কিন্তু পূজা শুরু না হওয়া পর্যন্ত নতুন জামা-জুতা বন্ধুদের দেখাতেন না বলে জানান তিনি।

রঙ খেলার কথা বিশেষভাবে মনে রয়ে গেছে তার। অপর্ণা বললেন, ‘রঙ খেলার দিন বাবা-মা, কাকা-কাকি সবাই যেন বন্ধু হয়ে যেতাম। এইদিন কোনো বাছবিচার ছিল না। কে কাকে কত রঙ মাখিয়ে দিতে পারে তা নিয়ে চলত প্রতিযোগিতা। কিন্তু প্রতিমা বিসর্জনের কথা ভেবে, দশমীর দিন সন্ধ্যার পর থেকে মন খারাপ হয়ে যেতো!’

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm