কিডনি রোগী কল্যাণ সংস্থা পেল সমাজসেবা অধিদপ্তরের নিবন্ধন

সমাজসেবা অধিদপ্তরের নিবন্ধন পেল কিডনি রোগী কল্যাণ সংস্থা। দীর্ঘ চার বছর ধরে প্রচেষ্টার ধারাবাহিকতায় সমাজসেবা অধিদপ্তরে অধীনে সংস্থার নিবন্ধন সনদ অর্জিত হয়।

হতদরিদ্র কিডনি রোগীদের সহায়তা ও সচেতনতা তৈরির লক্ষ্য নিয়ে ২০১৯ সালের ১৪ মার্চ সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করা হয়।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) কিডনি রোগী কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এসএম জাহেদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাব্বির আহমদের হাতে নিবন্ধন সনদ হস্তান্তর করেন চট্টগ্রাম জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের ডেপুটি ডাইরেক্টর মোহাম্মদ ফরিদুল আলম ও সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ওয়াহীদুল আলম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন তানজিমুল মুসলেমিন এতিমখানার সুপারিন্টেনডেন্ট মোহাম্মদ আমানুল্লাহ।

১৬ কোটি জনসংখ্যার এই বাংলাদেশে ২ কোটিরও বেশি মানুষ কিডনি রোগে আক্রান্ত। মরণব্যাধি কিডনি রোগের দীর্ঘমেয়াদী চিকিৎসা অত্যন্ত ব্যয়বহুল। প্রতিবছর অগণিত মানুষ অর্থাভাবে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুবরণ করছে। প্রিয়জনকে বাঁচাতে মৃত্যুর দিনক্ষণ পর্যন্ত চিকিৎসার পেছনে ছুটতে বাধ্য থাকে ভুক্তভোগী পরিবার। এমন বাস্তবতায় গঠন করা হয়— কিডনি রোগী কল্যাণ সংস্থা।

চিকিৎসক, হাসপাতাল, ক্লিনিক, ল্যাব, ব্লাড ও অক্সিজেন ব্যবস্থাপনা, অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, ন্যায্যমূল্যে ডায়ালাইসিস, ঔষধসহ কিডনি-রোগীদের চিকিৎসার সু-ব্যবস্থা সংস্থার মূল উদ্দেশ্য।

Yakub Group

এ লক্ষ্যে স্বাস্থ্যবিষয়ক সরকারি-বেসরকারি দপ্তরসমুহ, এনজিও, মানবিক সংগঠন, ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও দেশ-বিদেশের সহযোগিতায় হতদরিদ্র রোগীদের বিড়ম্বনামুক্ত সাশ্রয়ী মূল্যে, বিনামূল্যে চিকিৎসার সু-ব্যবস্থার মাধ্যমে জীবনরক্ষার প্রত্যয় নিয়ে প্রতিষ্ঠা করা হয় ‘কিডনি রোগী কল্যাণ সংস্থা।’

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ksrm