কায়সার মালিক নিয়ে নেতাকর্মীদের সতর্ক করলো পাহাড়তলী আওয়ামী লীগ

0

সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে অব্যাহতি পাওয়া কায়সার মালিকের ব্যাপারে সতর্ক থাকার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটি। কমিটির দপ্তর সম্পাদক এবিএম আকরামুল হক গত ৪ আগস্ট এ সংক্রান্ত একটি বিশেষ বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী কমিটি কর্তৃক সাধারণ সম্পাদকের পদ হতে সর্বসম্মত অনাস্থায় দায়িত্ব হতে অব্যাহতিপ্রাপ্ত কায়সার মালিকের দলীয় পদ-পদবি ও প্যাড ব্যবহার করে কোন পত্র যোগাযোগ ও কর্মসূচি ঘোষণার এখতিয়ার নাই। সেহেতু কায়সার মালিকের পত্র দ্বারা দলীয় কর্মসূচির নামে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগসহ সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সর্বস্তরের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।’

এ ব্যাপারে কমিটির দপ্তর সম্পাদক এবিএম আকরামুল হক চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘কায়সার মালিকের বিরুদ্ধে দলের নাম ব্যবহার করে চাঁদাবাজির অভিযোগ ছিল। এ ব্যাপারে তার কাছে জানতে চাওয়া হলে তিন কোন সদুত্তর দিতে পারেননি। তাই কমিটি সভা ডেকে তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়। তারপরও কায়সার মালিক দলীয় নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন জায়গায় চিঠি দিচ্ছেন। তাই তার ব্যাপারে সতর্ক থাকার জন্য নেতা-কর্মীদেরকে অনুরোধ করা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে কায়ছার মালিক চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘বিষয়টি সঠিক নয়। মহানগর আওয়ামী লীগ কর্তৃক ইউনিট কমিটিগুলো নিয়ন্ত্রিত হয়। মহানগর আওয়ামী লীগ আমাকে অব্যাহতি দেয়নি। তারা আমার নামে চিঠি দেয়। মহানগর আওয়ামী লীগের নির্দেশনা অনুসারে আমি প্রোগ্রামগুলো করে যাচ্ছি।’

উল্লেখ্য, কায়ছার মালিকের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, জুয়া, স্বেচ্ছাচারিতা, অনৈতিক ও সংগঠনবিরোধী কর্মকাণ্ডের অভিযোগ এনে তার কার্যক্রমে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে জানিয়ে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর ১৩ জুলাই অভিযোগ দিয়েছিলেন পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতিসহ দলের ২৮ জন নেতা।

এর আগে ২০১৩ সালের ২৫ জুলাই সম্মেলনের মাধ্যমে মহিউদ্দিন আহমেদ ভূঁঞাকে সভাপতি ও কায়ছার মালিককে সাধারণ সম্পাদক করে এই ওয়ার্ডের জন্য ৬৫ সদস্যবিশিষ্ট তিন বছর মেয়াদী কমিটি গঠন করা হয়। গত ২৪ জুলাই এই কমিটির ছয় বছর পূর্ণ হয়েছে।

এমএ/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন