কাচ্চি ডাইনের পর এবার ধরা খেল চকবাজারের কুটুমবাড়ি ও কেনটাকি

দুই দিনের মাথায় আবার জরিমানা গুণল মেডিকেলের ক্যান্টিন

11

চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজারের কাচ্চি ডাইন রেস্টুরেন্টের পর এবার ধরা খেল কুটুমবাড়ি রেস্টুরেন্ট ও কেনটাকি রেস্টুরেন্ট। এর পাশাপাশি মাত্র দুইদিনের মাথায় দ্বিতীয়বারের মতো জরিমানা গুণল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ক্যান্টিন।

মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলীর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজারে অভিযানে নামে।

অভিযান চলাকালে চকবাজারের কুটুমবাড়ি রেস্টুরেন্টে গিয়ে দেখা যায়, অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে খাবার তৈরি করা হচ্ছে। একই দৃশ্য দেখা গেছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পূর্ব গেটে অবস্থিত কেনটাকি রেস্টুরেন্টেও। হাতেনাতে এমন অবস্থা ধরা পড়ার পর কুটুমবাড়ী রেস্টুরেন্টকে ৭০ হাজার টাকা এবং কেনটাকি রেস্টুরেন্টকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নোংরা পরিবেশে খাবার বানিয়ে একই সময়ে জরিমানা গুণেছে চকবাজার-মেডিকেল এলাকার আরও দুটি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে ঝাল বিতানকে জরিমানা করা হয় ২৫ হাজার টাকা, ডিলা বেকারিকে ৫ হাজার টাকা।

তবে এর মধ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালতকেই অবাক করে দিয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ক্যান্টিনের অবস্থা। মাত্র গত রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রামের ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের একটি টিম অভিযান চালিয়ে এই ক্যান্টিনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে। অভিযানকালেই দেখা যায়, ওই ক্যান্টিনে নোংরা পরিবেশে তৈরি করা হচ্ছিল খাবার। এছাড়া বিক্রি হচ্ছিল মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়া খাদ্যপণ্যও।

এর মাত্র দুই দিনের মাথায় মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলীও একই অবস্থা দেখতে পান। সেই একই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, সেই একই নোংরা পরিবেশ। অথচ মেডিকেলে আসা রোগী ও তাদের স্বজনদের বেশিরভাগেরই ভরসা এই ক্যান্টিন।

সবকিছু দেখে মেডিকেলের এই ক্যান্টিনকে আবার ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হল।

এর আগে গত রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজারের ‘কাচ্চি ডাইন’ রেস্টুরেন্টকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। অভিযান চলাকালে ভোক্তা অধিকার টিম দেখতে পায়, ‘কাচ্চি ডাইন’ রেস্টুরেন্টে তৈরি করা কাচ্চিসহ অন্যান্য খাবারের স্বাদ বাড়ানোর জন্য স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন কেমিক্যাল মেশানো হচ্ছে। হাতেনাতে এমন ঘটনা ধরার পর প্রতিষ্ঠানটিকে এক লাখ জরিমানা করার পাশাপাশি কঠোরভাবে সতর্কও করে দেওয়া হয়।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

11 মন্তব্য
  1. মসি বলেছেন

    হোটেলগুলিকে জরিমানাসহ ৬/১২মাসের জন্য সিল গালা করে দিলে ভাল করে শাস্তি শিক্ষা হবে

  2. Kazi Md akbar hossain বলেছেন

    আইন করে নিয়মিত অনুমোদন সাপেক্ষে পরিচালনা করত বাধ্য করা

  3. পরায়ন চন্দ্র দেব বর্মন। বলেছেন

    ১ বৎসরের জন্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া প্রয়োজন!

    1. Babla Chowdhury বলেছেন

      নিয়মিত করলে এর সুফল সাধারণ মানুষ পাবে। কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের বেশিদিন করতে দেওয়া হয়না, টাকার কাছে পরাজিত।

  4. মনিরশাহাদাত বলেছেন

    চাকচিক্যর মধ্য নিতীর অবক্ষয়

  5. Babla Chowdhury বলেছেন

    নিয়মিত করলে এর সুফল সাধারণ মানুষ পাবে। কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের বেশিদিন করতে দেওয়া হয়না, টাকার কাছে পরাজিত।

  6. শুভ বলেছেন

    হোটেলগুলো একদম বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ

    1. রেহমান আরিফ বলেছেন

      😁😁😁 ঘুষের অপর নাম জরিমানা। ঘুষ টেবিলের নিচে দেয় আর জরিমানা টেবিলের উপরে। বুহু বছর ধরে এটায় চলছে। 🤧

  7. আলী আবছার বলেছেন

    জরিমানা দিয়ে সাজা মওকুফ! যে সকল হোটেল একবার জরিমানার আওতায় আসবে সে সকল হোটেলে মাসে একবার করে পরিদর্শন করা উচিত।

  8. Md Imrul Chowdhury বলেছেন

    Take action regularly.

  9. হাসান মাহমুদ বলেছেন

    চকবাজার কাচ্চি ডাইনের কাচ্চি ধোঁয়ার গন্ধ হয় সবসময়। সেটার জন্যও টাকা জরিমানা করা উচিত।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm