করোনা আতঙ্কে চুয়েটে পরীক্ষা বর্জন করে ৭ দফা দাবি জানাল শিক্ষার্থীরা

0

করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকায় চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা বর্জন করেছেন। রোববার (১৬ জানুয়ারি) চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত পরীক্ষা বর্জন করেন। পরে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে উপাচার্য বরাবরে ৭ দফা দাবি পেশ করেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানান, আবাসিক হলগুলোতে করোনা সংক্রমণের হার ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। এছাড়া অনেকেই করোনা লক্ষণ নিয়ে অসুস্থ অবস্থায় হলে অবস্থান করছে। ইতিমধ্যেই চুয়েটের বিভিন্ন হলের ৪জন শিক্ষার্থীর করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে।

এ অবস্থায় স্বশরীরে পরীক্ষায় অংশ নেয়ায় স্বাস্থ্য ঝুঁকি থেকে যায়। আগামী ১৭, ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি থেকেও তৃতীয়, দ্বিতীয় ও প্রথম বর্ষের পরীক্ষা শুরু হওয়ার তারিখ নির্ধারিত রয়েছে।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ও স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা মাথায় রেখে ৭ দফা দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি প্রশাসন বরাবর জমা দিয়েছে চুয়েটের সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হল- অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়া, যত দ্রুত সম্ভব অসমাপ্ত পরীক্ষার শিডিউল ও রিশিডিউল প্রকাশ করা, অনলাইনে বিভিন্ন বর্ষের শর্ট/সেলফস্টাডি পরীক্ষা গ্রহণ, সকল পরীক্ষার শিডিউল-একাডেমিক ক্যালেন্ডার আকারে আগামী দুই কার্যদিবসের মধ্যে প্রকাশ করা, পরীক্ষা চলাকালীন কোনো শিক্ষার্থী কোভিড সংক্রমিত হওয়ার কারণে পরীক্ষায় অংশগ্রহণে অপারগ হলে তাকে অকৃতকার্য হিসেবে গণ্য না করা, ডিপার্টমেন্টগুলোর এটাচমেন্ট স্বল্পসময়ের মধ্যে সম্পন্ন বা বিকল্প পদ্ধতি গ্রহণ করা, অনলাইন পরীক্ষায় যাদের ডিভাইস সংকট তাদের জন্য ঋণের ব্যবস্থা করা এবং করোনা সংক্রমণের হার পাঁচ শতাংশের নিচে নেমে এলে পুনরায় হলে ফিরিয়ে এনে অফলাইন পদ্ধতিতে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করা।

চুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম শিক্ষার্থীদের মাঝে সরাসরি উপস্থিত হয়ে যথাশীঘ্রই একাডেমিক কাউন্সিল ডেকে সীদ্ধান্ত নেওয়ার আশ্বাস দেন। সে পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সচেতন থাকার পরামর্শ দেন।

এসি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm