s alam cement
আক্রান্ত
১০২৪১৫
সুস্থ
৮৬৮৫৬
মৃত্যু
১৩৩১

করোনায় মৃত্যুতে চট্টগ্রামে আবারও বড় লাফ, বেড়েছে শনাক্তও

0

চট্টগ্রামে পর পর দুদিন করোনার ‘সুবাতাস’ বয়ে যাওয়ার পর আচমকা আবারও বদলে গেল পরিস্থিতি। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা কেড়ে নিয়েছে ১০ জনের প্রাণ। একই সময়ে ৩১৮ জনের দেহে মিলেছে করোনার জীবাণু। এর মধ্যে নগরে ২০২ এবং উপজেলা পর্যায়ে ১১৬ জন।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৭ হাজার ৬৭০ জন। এর মধ্যে নগরে ৭১ হাজার ৩২৫ জন এবং উপজেলা পর্যায়ে ২৬ হাজার ৩৪৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে ইতিমধ্যে ১ হাজার ১৯৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে নগরে ৬৭৫ এবং উপজেলায় ৫১৮ জন।

মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) সকালে চট্টগ্রাম জেলার করোনা সম্পর্কিত এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি। তিনি বলেন, চট্টগ্রামের ১১ ল্যাব এবং কক্সবাজারের একটি ল্যাব মিলে ২ হাজার ১৪৫ জনের নমুুুুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষায় করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৩১৮ জনের।

ল্যাবভিত্তিক প্রতিবেদনে দেখা যায়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৬০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৬ জনকে করোনার জীবাণুবাহক হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে ৬৬৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৪৭১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪০ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৭ জনের শরীরে করোনার জীবাণু পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রামের বিভিন্ন ল্যাবে এন্টিজেন টেস্টে ১৪৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া, কক্সবাজারে মেডিকেল কলেজে চট্টগ্রামের ১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করেও কারো নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়নি। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আরটিএলে ৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

নগরীর বেসরকারি করোনার পরীক্ষাগারগুলোর মধ্যে ইমপেরিয়াল হাসপাতালে ৭১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শেভরনে ৩২৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ২৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ইপিক হেলথ কেয়ারে ৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

উপজেলা পর্যায়ে করোনা শনাক্ত ১১৬ জনের মধ্যে রাউজানেই মিলেছে ৩৪ জন। এছাড়া, হাটহাজারীতে ২৩ জন, সীতাকুণ্ডে ১১ জন, সাতকানিয়ায় ৮ জন, চন্দনাইশ, পটিয়া ও ফটিকছড়িতে ৭ জন করে, লোহাগাড়ায় ৬ জন, বোয়ালখালী ৫ জন, আনোয়ারা ও বাঁশখালীতে ৩ জন করে, রাঙ্গুনিয়ায় ২ জন করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদিন, মিরসরাই এবং সন্দ্বীপে কোন করোনা রোগী পাওয়া যায়নি।

এমএহক

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm