আক্রান্ত
৯৮৮৮
সুস্থ
১১৯৫
মৃত্যু
১৮৯

করোনামুক্ত হলেও ঝুঁকিমুক্ত নন ডা. সমিরুল

ফুসফুস সেরে উঠতে সময় লাগবে

0
high flow nasal cannula – mobile

করোনামুক্ত হলেও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. সমিরুল ইসলাম বাবু শারীরিকভাবে এখনও সচল হয়ে উঠতে পারেননি। পুরোপুরি সেরে উঠতে তার আরও সময় লাগবে বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।

রোববার (৩১ মে) চমেক ল্যাবে তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। ডা. সমিরুল ইসলাম চট্টগ্রামের প্রথম করোনা রোগী, যার ওপর প্লাজমা থেরাপি প্রয়োগ করা হয়েছে। তবে প্লাজমা থেরাপিই শুধু নয়, করোনার চিকিৎসায় আলোচিত সব পদ্ধতিই প্রয়োগ করা হয়েছে এই চিকিৎসকের ক্ষেত্রে— এমনটাই জানিয়েছেন তার দায়িত্বে থাকা চিকিৎসকরা।

ডা. সমিরুলের চিকিৎসা তত্ত্বাবধানের দায়িত্বে থাকা চমেকের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক অনিরুদ্ধ ঘোষ চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘তিনি (ডা. সমিরুল) এখন করোনামুক্ত। কিন্তু উনার রিকভারিটা নির্ভর করবে উনার লাঙস (ফুসফুস) কতদূর এফেক্টেড হয়েছে এটার ওপর। এক্ষেত্রে একটু দীর্ঘ সময় লাগতে পারে উনার লাঙস ফাংশনটা পুরোপুরি নরমাল হতে।’

প্লাজমা থেরাপির প্রভাবেই কি ডা. সমিরুল সেরে উঠেছেন— এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. অনিরুদ্ধ বলেন, ‘আমাদের জানা মতে যত চিকিৎসা ছিল সবই উনার ওপর প্রয়োগ করা হয়েছে। এখন কোন্ অংশটুকু প্লাজমার জন্য, আর কোন্ অংশটুকু প্লাজমার জন্য নয়— এটা আলাদা করে বলা যাবে না। প্লাজমার প্রভাব আলাদা করে বোঝা যাবে না।’

ডা. সমিরুল ইসলাম করোনায়ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রথম দিকে বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। পরে হঠাৎ তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ২১ মে তাকে চমেক হাসপাতালের একটি কেবিনে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমে গেলে তাকে মঙ্গলবার (২৬ মে) চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো প্লাজমা থেরাপি দেওয়া হয়। ডা. অনিরুদ্ধ ঘোষের নেতৃত্বে ঢাকার বিশেষজ্ঞদের সাথে যোগাযোগ রেখে একটি বিশেষ মেডিকেল টিম গঠন করে তার চিকিৎসা দেওয়া হয়। করোনার চিকিৎসায় এখন পর্যন্ত আলোচিত সবগুলো চিকিৎসাই তার ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা হয়। সব চেষ্টা সফল করে করোনামুক্ত হলেন তিনি। এবার অপেক্ষা ফুসফুসের ফাংশন রিকভারির।

রোববার (৩১ মে) রাতে সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডা. সমিরুলের অক্সিজেন স্যাচুরেশন আইসিইউ সাপোর্টের মধ্যেই ৮০ থেকে ৮২ শতাংশ পর্যন্ত ছিল।

এআরটি/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Manarat

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm