s alam cement
আক্রান্ত
৫১৪৯৯
সুস্থ
৩৭৪৯৪
মৃত্যু
৫৭৩

কথা রাখলো রেলওয়ে, ৪ মাস পর বেতন পাচ্ছেন অস্থায়ী ৪৭ গেটকিপার

0

অবশেষে বকেয়া বেতন পেতে যাচ্ছে রেল পূর্বাঞ্চলের ৪৭ জন অস্থায়ী গেটকিপার। একইসাথে এ ৪৭ জনসহ ৮৬ পদের অস্থায়ী কর্মচারীদের চাকরির মেয়াদ ১ বছর বৃদ্ধি করা হয়েছে। উল্লেখ্য, চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ৪৭ জন অস্থায়ী গেটকিপার ৪ মাস ধরে বেতন না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে মর্মে চট্টগ্রাম প্রতিদিন সংবাদ প্রকাশ করার পাশাপাশি যোগাযোগ করেন রেলওয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে। বিষয়টি জেনে তারা আশ্বাস দেন বিষয়টি অবশ্যই বিবেচনার। অবশেষে কথা রেখেছেন রেল কর্তৃপক্ষ।

উপপরিচালক (ই-৩) শাহ আলম স্বাক্ষরিত অফিস আদেশ সোমবার ৩ মে রেল ভবন থেকে এ বিষয়ে অফিস আদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল অফিসে এসে পৌঁছেছে। রেলওয়ে বিভাগীয় পরিবহন বিভাগের পক্ষ থেকে প্রধান সহকারী মো. নাঈম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

জানা যায়, ৪৭ জন অস্থায়ী গেটকিপারের ১বছর মেয়াদ শেষ হওয়ায় এ বিষয়ে পুনরায় সিদ্ধান্ত চেয়ে বিভাগীয় পরিবহন দপ্তর থেকে চিঠি দিয়ে অবহিত করার পরেও বিষয়টি অমিমাংসিত রয়ে যায়। ফলে অস্থায়ী এ সব গেটকিপার ৪ মাস চাকরি করেও বেতন পাচ্ছিলেন না।

চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়া ৮৬ পদের সকল অস্থায়ী পদের কর্মচারীদের ৮ জানুয়ারি ২০২১ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ পর্যন্ত চাকরি বর্ধিত করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত বিষয়ে অর্থ বিভাগকে উন্নয়ন বিশেষ খাত হতে বেতন-ভাতা পরিশোধ করার নির্দেশ প্রদান করে অফিস আদেশ প্রেরন করা হয়। রেলওয়ে মহা ব্যবস্থাপকের (পূর্ব) চিঠির প্রেক্ষিতে রেলওয়ে মহাপরিচালকের অনুমতি সাপেক্ষে মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানা গেছে। রেল পূর্বাঞ্চলের মহা ব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর হোসেনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তখন তিনি বলেছিলেন, নানা জটিলতার কারণে বিষয়টির সিদ্ধান্ত নিতে দেরি হয়েছে। আমরা হাসি মুখে ঈদ করলে অবশ্যই আমার গেটকিপাররাও ঈদ করবে। এ নিয়ে চিন্তা না করতে গেটকিপারদের অনুরোধ করেন তিনি।

তিনি কথা রাখায় অস্থায়ী গেটকিপাররা তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। চট্টগ্রাম প্রতিদিনকেও ধন্যবাদ জানান তারা। উল্লেখ্য, ৩০ এপ্রিল ‘রেলের ৪৭ গেটকিপারের মানবেতর জীবন, ৪ মাস ধরে বন্ধ বেতন-ভাতা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে চট্টগ্রাম প্রতিদিন।

কেএস

ManaratResponsive

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm