কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

0

শাহেদ ইমরান মিজান, কক্সবাজার:

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ২০১৬-১৭ সেশনের চলমান ভর্তি প্রক্রিয়ায় অতিরিক্ত ফি আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আদায় করা এই ফি এই যাবত কালের সর্বোচ্চ বলে জানান ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। অতিরিক্ত ফি আদায় নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

c11
ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অভিযোগ করেছেন, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে চলমান সেশনে ভর্তি ফি নেয়া হচ্ছে ৩০ হাজার ৩০০টাকা। এই অংক দেশের সব মেডিকেল কলেজের মধ্যে সর্বোচ্চ বলে দাবি করেন তারা। গত বছর ভর্তি ফি ছিল ১৬ হাজার ৯৫০ টাকা। এক লাফে প্রায় ১৫ হাজার টাকা ফি বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। তবে কলেজ কর্তৃপক্ষ দাবি করেছেন, ২৫ হাজার ৩০০ টাকা ফি নেয়া হচ্ছে।

 
শিক্ষার্থীরা জানান, ঢাকা মেডিকেল কলেজের ভর্তি ফি ১০ হাজার টাকা এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ভর্তি ফি ১৩ হাজার ৫০০ টাকা। দেশের অন্যান্য মেডিকেল কলেজের ভর্তি ফি’ও এর মধ্যে রয়েছে। কিন্তু কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ নিয়মকে তোয়াক্কা না করে দিগুণ ভর্তি ফি আদায় করছে। অন্যদিকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে যেসব খাতে টাকা নিচ্ছে তাও যৌক্তিক নয় বলে দাবি করেন শিক্ষার্থীরা।

 

একাডেমিক ফান্ড নামে পাঁচ হাজার টাকা, ইন্টারনাল এসেসমেন্ট/কেমিক্যাল নামে ছয় হাজার টাকা এবং বিবিধ নামে সাত হাজার ৫০০ টাকা। যদিও এইসব ব্যয়গুলোর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বরাদ্দ থাকার কথা জানা গেছে।

 
গতকাল কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে ক্যাম্পাসে কথা হলে কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, দেশের নতুন পুরাতন কোন মেডিকেল কলেজেই এত উচ্চ ভর্তি ফি নেই। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজই একমাত্র ব্যতিক্রম। কলেজ ভর্তি ফি এর নামে ছাত্রছাত্রীদের আর্থিক হয়রানি করছে কর্তৃপক্ষ। নাম প্রকাশে এক ভর্তিচ্ছু ছাত্র আক্ষেপ নিয়ে বলেন, আমি দরিদ্র পরিবারের সন্তান মেডিকেল পরীক্ষায় পাশ করেও, টাকার পরীক্ষায় হিমশিম খাচ্ছি।

 
ভর্তিচ্ছুরা আরও অভিযোগ করেন যে, সরকারী হোস্টেলের জন্য জামানত নেয়ার কোন নজির নেই। তাছাড়া যে হোস্টেল এখনও পর্যন্ত সম্পূর্ণ প্রস্তুত নয় সে হোস্টেলের জন্য (ফেরতযোগ্য) ৫ হাজার টাকা করে প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীদের নিকট থেকে নেয়া হচ্ছে। যদিও নতুন সেশনের ক্লাস শুরুর আগে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিফট হওয়া এখনও অনিশ্চিত বলে জানা গেছে।

 
অতিরিক্ত ফি নেয়ার কথা স্বীকার করে কক্সবাজার মেডিকেলে কলেজের অধ্যক্ষ ডা. রেজাউল করিম বলেন, ‘কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে এখনো পূর্ণাঙ্গ সরকারি বরাদ্দ হয় না। এই কারণে কর্মচারী, সরঞ্জামসহ আনুষঙ্গিক খরচ কলেজ কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হয়। এ খরচ মেটাতে ভর্তি ফি বাড়ানো হয়েছে।’

 

এ এস / জি এম এম / আর এস পি :::

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন