‘কক্সবাজারে ধর্ষণকাণ্ডের প্রচারে দেশ ক্ষতিগ্রস্থ, দায় সাংবাদিকদের’- ক্ষোভ মন্ত্রীর

0

কক্সবাজারে হোটেলে নারী পর্যটককে ধর্ষণের ঘটনায় এবার মুখ খুলেছেন বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। দেশজুড়ে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার বিষয়টি নিয়ে এই মন্ত্রীর বক্তব্য হলো, ‘পৃথিবীর কোনো দেশ নেই যেখানে অন্যায়, অপরাধ নেই। যতগুলো সভ্য দেশ আছে সেসব দেশেও অপরাধ হয়।’

শুধু তাই নয়, এই ঘটনা প্রচার করায় সাংবাদিকদের উপর মন্ত্রী নারাজও। ঘটনাটি সাংবাদিকরা ‘ফলাও’ করে প্রচারের ফলে ‘দেশ ক্ষতিগ্রস্ত’ হয়েছে বলে মন্তব্য করে এর দায় সাংবাদিকদের দিকেই অনেকটা ঠেলে দিয়েছেন মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রামের দি পেনিনসুলা চিটাগং হোটেলের ডালিয়া হলে ৩ দিনব্যাপী চিটাগাং ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

মাহবুব আলী বলেন, ‘সাইবেরিয়া থেকে অতিথি পাখি আমাদের দেশে আসে, তেমনি পর্যটকরাও আসবে। আমাদের দেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রয়েছে। আমাদের সমুদ্র সৈকত, টানেল, পদ্মা সেতু, মুক্তিযুদ্ধের বধ্যভুমি, পোশাক শীল্প, ন্যাচারাল বিউটি দেখার জন্য বিদেশী পর্যটকরা আসবে।’

মন্ত্রী কক্সবাজারে নারী পর্যটক ধর্ষণের শিকার হওয়ার প্রসঙ্গে টেনে বলেন, ‘পৃথিবীর কোনো দেশ নেই যেখানে অন্যায়, অপরাধ নেই। যতগুলো সভ্য দেশ আছে সেসব দেশেও অপরাধ হয়। কিন্তু কক্সবাজারের বিষয়টি সাংবাদিকরা বেশী ফলাও করে প্রচার করেছে। এগুলোতে দেশ ক্ষতিগ্রস্থ হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে মাটি ও মানুষের প্রাণের স্পন্দন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনিই বাংলাদেশে পর্যটন বোর্ড গঠন করেছিলেন। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এসডিজি লক্ষ্যে মাত্রা অর্জনে জাতিসংঘ থেকে প্রশংসিত হয়েছে।’

বিমানবন্দরগুলোর উন্নয়ন করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অভ্যন্তরীণ বিমান সব বিমান বন্দরে চলাচল করবে। করোনাকালীন সময়ে পর্যটন শিল্প বিশ্বব্যাপী ক্ষতিগ্রস্ত। বাংলাদেশও বাদ যায়নি। এ শিল্পকে পুনরুদ্ধারে কাজ করে যাচ্ছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কোভিডের অতিমারীর সময়ে আমরা বিশেষ ফ্লাইট চালু করেছি। টুরিজমকে রক্ষা করার জন্য রেল লাইন বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী জাবেদ আহমেদ এবং চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম ।

এভিয়েশন ও পর্যটন বিষয়ক সাময়িকী দি বাংলাদেশ মনিটরের উদ্যোগে আয়োজিত চট্টগ্রাম পর্যটন মেলার ১২তম এই আসরটির টাইটেল স্পন্সর শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি (ওটিএ) ট্রিপলাভার এবং এনটিও পার্টনার জাতীয় পর্যটন সংস্থা বাংলাদেশ ট্যুরিজ বোর্ড (বিটিবি)।

দি পেনিনসুলা চিটাগাং হোটেলে অনুষ্ঠিতব্য ৩ দিনব্যাপী পর্যটন মেলায় ভিজিটরদের জন্য রয়েছে বিভিন্ন আকর্ষনীয় অফার। মেলাটিতে ভ্রমন ও পর্যটনের সংঙ্গে যুক্ত ২৬ টি প্রতিষ্ঠান একই ছাতার নীচে সমবেত হয়ে ২৯টি স্টলে তাদের পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করছে ।

অংশগ্রহনকারীদের মধ্যে রয়েছে এয়ারলাইন, ট্যুর অপারেটর, হোটেল, রিসোর্ট অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি, হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান, ইমিগ্রেশন সেবা প্রদানকারীসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা।

মেলা চলাকালীন অংশগ্রহনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ডিজিটরদের জন্য তাদের পণ্য ও সেবার ওপর বিশেষ মূল্যছাড়সহ অন্যান্য সুবিধা প্রদান করছে।

ভিজিটরদের জন্য রয়েছে হ্রাসকৃত মূল্যে রয়েছে এয়ার টিকিট, ভ্রমণ প্যাকেজ, হোটেল ও রিসোর্ট রুম ইত্যাদি পাওর সুযোগ।

মেলায় অংশগ্রহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- ট্রিপলাভার লিমিটেড, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড , ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স, বেস্ট ওয়েস্টার্ণ হেরিটেজ কক্সবাজার, সী শেল হোটেল, হোটেল গ্র্যান্ড মোস্তফা, আরশিনগর ফিউচার পার্ক, হোটেল দি কক্স টুডে, গোন্ডস্যান্ডস হোটেল এন্ড রিসোর্ট লিমিটেড, ওশান প্যারাডাইজ হোটেল এন্ড রিসোর্ট, নগর ভ্যালি হোটেল, সাঙ্গু ট্যুরস, ব্লু-ড্রিম ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস, গো-ট্রিপ, ইকো ট্রাভেলার্স, ট্রাভেল এন্ড বিজনেস পোর্টাল, টিএলএনট্রিপ, বামরুনগ্রাড হসপিটাল বাংলাদেশ অফিস, সিএম ইন্টারন্যাশনাল ইমিগ্রশন সার্ভিস, ইনোগ্লোব টেকনোলজিস লিমিটেড, মেড সলিউশন্স, ইউনাইটেড কলেজ অব এভিয়েশন সায়েন্স এন্ড ম্যানেজমেন্ট, টিএইচআর ইমিগ্রেশন সাভির্স এবং ফর্টিস হসপিটাল ব্যাঙ্গলোর।

এএস/এমএফও

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm