আক্রান্ত
১৮৬৯৫
সুস্থ
১৫০৬২
মৃত্যু
২৯০

এসএসসি পাস কর্মচারী একলাফেই ‘কর কর্মকর্তা’

বিদায়বেলায় মেয়র নাছিরের খেয়ালখুশির পদোন্নতি

0

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কর কর্মকর্তা পদে কাউকে পদায়ন করতে হলে তার থাকতে হবে স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা। কিন্তু শিক্ষাগত জীবনে যিনি এসএসসির গণ্ডিই পেরোতে পারেননি, দায়িত্ব ছাড়ার শেষ মুহূর্তে এসে ওই ব্যক্তিকে রীতিমতো ‘কর কর্মকর্তা’ হিসেবেই পদোন্নতি দিলেন বিদায়ী মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

যোগ্যতা না থাকলেও এত বড় পদের ভার যার ওপর ন্যস্ত করা হল তার নাম মোহাম্মদ ছৈয়দ। তিনি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র নাছিরের ‘ব্যক্তিগত সহকারী’।

অভিযোগ উঠেছে, ব্যক্তিগত সহকারী (পিও) হিসেবে পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করে মোহাম্মদ সৈয়দ ‘মন জয়’ করেছেন মেয়র নাছিরের। তাই বিদায়বেলায় নিয়মকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়েই মেয়র তাকে এই ‘পুরস্কার’ দিয়েছেন। যে পদে তাকে পদায়ন করা হয়েছে সে পদে কোনো চাকরির অভিজ্ঞতাও নেই সৈয়দের।

জানা গেছে, প্রচলিত বিধিবিধানকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের শেষ বেলায় এসে সাঁটলিপিকার ও তার ব্যক্তিগত সহকারী (পিও) মোহাম্মদ ছৈয়দকে দ্বিতীয় শ্রেণীর মর্যাদার পদে বদলি করা হয়েছে।

মেয়রের মেয়াদের শেষ মুহূর্তে এসে টাইপিস্ট পদে নিয়োগ পাওয়া একজন কর্মচারীর যোগ্যতা যাচাই-বাছাই না করেই দ্বিতীয় শ্রেণীর কর কর্মকর্তা হিসেবে বদলি করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সিটি কর্পোরেশনের একাধিক কর্মকর্তা।

গত ২১ জুলাই চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সচিব আবু শাহেদ চৌধুরীর স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে সাঁটলিপিকার ও মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী পদবি থেকে পদোন্নতি দিয়ে রাজস্ব সার্কেল-৮ এর (ভারপ্রাপ্ত) কর কর্মকর্তা (লাইসেন্স) পদে বদলি করা হয়।

সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় সরকার, পল্লী উয়ন্নয় ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের স্মারক নম্বর ৪৬.০০.০০০০.০৭১.১৬.০০৪.১২(অংশ-৩).১২৭ অনুযায়ী চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অনুমোদিত অর্গানোগ্রাম ভুক্ত শূন্য পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে একজন কর আদায়কারী কর্মকর্তাকে কোনো স্বীকৃতি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রি বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে। এক্ষেত্রে সম্প্রতি কর কর্মকর্তা হিসেবে বদলি পাওয়া মোহাম্মদ ছৈয়দের শিক্ষাগত যোগ্যতা শুধুমাত্র এসএসসি।

জানা যায়, ১৯৭৮ সালে এসএসসি পাস করেন মো. ছৈয়দ। ১৯৮২ সালে তিনি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে টাইপিস্ট (সাঁটলিপিকার) পদে যোগদান করেন। দায়িত্ব পালনকালে সাবেক মেয়র মনজুর আলমের পিও এবং সবশেষ মেয়র আজম নাছির উদ্দিনেরও পিও হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

মোহাম্মদ ছৈয়দ নিজেও শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি স্বীকার করে চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমি ১৯৮২ সালে টাইপিস্ট পদে যোগদান করেছিলাম। তখন আমার শিক্ষাগত যোগ্যতা ছিল এসএসসি পাস। এখনও একই যোগ্যতাই রয়েছে আমার।’

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম বলেন, ‘এসএসসি পাস মো. ছৈয়দকে সম্প্রতি বদলি হওয়ার বিষয়টি সরাসরি মেয়র অর্ডার করেছেন। এ বিষয়ে মেয়র সাহেব ভাল বলতে পারবেন।’

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামশুদ্দোহা বলেন, ‘মেয়র মহোদয়ের পিও মো. ছৈয়দকে সম্প্রতি কর কর্মকর্তা হিসেবে বদলি করা হয়েছে। তার শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে উনি আগেও সেখানে কর্মকর্তা ছাড়াও নিচের অন্য কোনো পদে দায়িত্বে ছিলেন। নিয়ম অনুসারে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ হলেও অভিজ্ঞতার বিবেচনায় ওনাকে ওই পদে বদলি করা হয়েছে।’

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm