আক্রান্ত
১৪৯৯১
সুস্থ
৩০৬১
মৃত্যু
২৪০

ঈদে ইট পাথরের শহর ছেড়ে মানুষ যাচ্ছে গ্রামের মেঠোপথে

0

ঈদ এলেই পাথুরে শহরকে যেন বিদায় দিতে চায় সবাই। ঈদের সময়ে গ্রামে কোলাহল বাড়ে নগর হয়ে পড়ে ফাঁকা। ঈদ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার থেকেই চট্টগ্রাম নগরী ছেড়েছেন অধিকাংশ লোক। শুক্রবার সকালেও নগর ছেড়েছেন অনেকে।

শুক্রবার (৩১ জুলাই) সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, বাস যাত্রীদের কিছুটা ভিড় থাকলেও রেল এবং লঞ্চ স্টেশনে কোন ভিড় নেই। নগরীর অধিকাংশ এলাকা এখন লোকশূন্য।

মানুষ চট্টগ্রাম নগরী ছেড়ে যাচ্ছে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার পথে। বাসস্ট্যান্ডগুলোতে শুক্রবার সকালেও ভিড় দেখা গেছে।

শুক্রবার সকালে নগরীর বিআরটিএ স্টেশন, বহদ্দারহাট, অক্সিজেন বাসস্টেশনে সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, বাস কাউন্টারগুলোতে টিকিটের জন্য যাত্রীদের লাইন। বাসে ওঠার জন্য যাত্রীরা হুড়োহুড়ি করছেন।

এদিকে পরিবার নিয়ে ভ্রমণে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন যাত্রীরা।

মো. জামাল উদ্দিন তার পরিবার নিয়ে চাঁদপুর যাওয়ার জন্য এসেছিলেন গরীবুল্লাহ শাহ মাজার সংলগ্ন বাস কাউন্টারে কিন্তু তিনি কোন টিকিট পাননি। বৃহস্পতিবার রাতে প্রচণ্ড ভিড় ছিল দুরপাল্লার বাস স্টেশনের কাউন্টারগুলোতে।

জানতে চাইকে সোহাগ পরিবহনের টিকিট কাউন্টার মহিউদ্দিন বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। চট্টগ্রাম থেকে যাত্রীরা ঠিক সময়ে যাত্রা করতে পারছেন বলেও দাবি করেছেন তিনি।

অন্যদিকে অনেক শ্রমজীবী যাত্রীরা জানিয়েছেন চাকরি হারিয়ে স্থায়ীভাবেই নগর ছাড়ছেন তারা। এ করোনা তাদের শেষ অবলম্বনটুকুও কেড়ে নিল। ঈদের আনন্দের চেয়ে জীবিকা নিয়ে দুশ্চিন্তাই তাদের পাথেয়।

উল্লেখ্য, এবার করোনাভাইরাস মহামারিতে ট্রেনে যাত্রী পরিবহণ বন্ধ রয়েছে। কিন্তু সরকারি ছুটি প্রতিবছরের মতো এবারও তিনদিন রাখা হয়েছে। তবে সরকারি কর্মকর্তাদের কর্মস্থলে থাকার নির্দেশনা রয়েছে।

এএস/ এসএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

ManaratResponsive

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm