ইসকনের সমাবেশে চমক দেখালেন যুবলীগ নেতা বাবর

চট্টগ্রামের নন্দনকানন সড়ক। বৃহষ্পতিবার (২৮ অক্টোবর) দুপুর হতেই লোকে লোকারণ্য হয়ে পড়ে। সেখানে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে মহাসমাবেশের আয়োজন করে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইস্কন), চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটি।

মহাসমাবেশে অতিথিরা যখন বক্তব্য রাখছিলেন, তখন সবার নজর যায় কিছু শরবতের গাড়ির দিকে। প্রচণ্ড তাপদাহে যখন হাজার হাজার সনাতনী আন্দোলনকারীর কাহিল অবস্থা তখনই তাদের পাশে শরবত নিয়ে দাঁড়ালেন ইসলাম ধর্মাবলম্বী হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর।

এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এই ভিন্নধর্মী আয়োজন করেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর। হিন্দু, মুসলিম এসব বাছবিচারে না গিয়ে শুধুমাত্র মানুষ ও বাঙ্গালি হিসেবেই এই আয়োজন—বলছেন আয়োজক।

ইসকনের সমাবেশে চমক দেখালেন যুবলীগ নেতা বাবর 1

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের এই আন্দোলনে বিশাল মানুষের উপস্থিতি টের পেয়ে সাথে সাথে দুইটি মিনি ট্রাকে করে বিরতিহীনভাবে সবার জন্য লেবুর শরবতের আয়োজন করেন যুবলীগ নেতা বাবর। বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চিন্তাভাবনাকে ধারণ করে এমন পদক্ষেপ, জানান হেলাল আকবর চৌধুরী নিজেই।

চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে তিনি বলেন, ‘জাতপাত না বাঙ্গালি হিসেবেই পাশে দাঁড়িয়েছি। গরমে সকল সনাতনী ভাইবোনদের যখন নাজেহাল অবস্থা তখন তাৎক্ষণিক এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করি। জানি না হিন্দু ভাই বোনরা আমার উপহার কিভাবে গ্রহণ করেছে তবে আমি শুধুমাত্র একজন বাঙ্গালী হিসেবেই আমার হিন্দু ভাইদের পাশে দাঁড়িয়েছি।’

Yakub Group

কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক এই নেতা আরও বলেন, ‘শুধুমাত্র এবার না, পরবর্তীতে যখনই আমার হিন্দু ভাইদের পাশে দাঁড়ানোর সুযোগ পাবো তখনই আমি তাদের সাথে থাকব। এই দেশ হিন্দু মুসলিম বৌদ্ধ সকলের।’

নন্দনকাননে বাসা হওয়ায় সুবাদে সকাল থেকেই মানুষের উপস্থিতি লক্ষ্য করেন বাবর, আর সেই ধারণা থেকেই তাৎক্ষণিক দুইটি মিনি ট্রাকে করে ছয়টি ড্রামে বিরতিহীনভাবে আন্দোলনকারীদের এই শরবত বিতরণ করা হয়।

উপহার বিতরণে সাহায্য করেন হাজী মুহাম্মদ মুহসিন কলেজ, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগসহ কোতয়ালী থানা ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা। এর আগে রমজানমাস জুড়ে প্রতিদিন পাঁচহাজার গরীব লোকের সেহেরি ও ইফতার উপহার দিয়েও প্রসংশার বন্যায় ভেসেছিলেন চট্টগ্রামের হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর।

তাছাড়াও দেশজুড়ে প্রশংসিত করোনা প্রতিরোধক বুথের উদ্ভাবন করে করোনাকালে দেশের মানুষকে ফ্রিতে মাষ্ক ও হেন্ড স্যানিটাইজার দিয়েছিলেন বাবর। বাবরের উদ্ভাবিত এই বুথটি দেশের ৬৪ জেলায় স্থাপন করা হয়।

কেএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!