ইউএনও–ওসিকে ‘টাকা’ দেওয়ার অভিযোগ বোয়ালখালীর প্রার্থী জাহেদুল হকের বিরুদ্ধে

চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জাহেদুল হক এবার ইউএনওকে ২০ লাখ এবং ওসিকেও মোটা অঙ্কের টাকা দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৮ মে) নির্বাচনের আগের দিন এ ঘটনা ঘটে। এর আগেও জাহেদুল হকের হেলিকপ্টার প্রতীকে ভোট দিতে ঘরে ঘরে গিয়ে টাকা দেওয়ার অভিযোগ নিয়ে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ে।

প্রার্থীর পক্ষে টাকা বিতরণের বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মইনুল হক বলেন, ভিডিওটি আমাদের নজরে এসেছে। এতে কিছু লোকজনকে হেলিকপ্টার প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে প্রচার ও টাকা বিলি করতে দেখা গেছে। এটা অবশ্যই নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন। এ বিষয়ে প্রার্থীকে শোকজ করা হবে। শোকজের জবাব অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে রোববার জাহেদুল হকের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টাসহ পরিবারের সম্পত্তি দখলের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তার আপন দুই ভাই মো. নেছারুল হক ও মো. ছায়েদুল হক। তারা বলেন, ‘জাহেদুল হক নির্বাচনে হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। তিনি আমাদের মরহুম বাবার আদর্শ ও আদেশ অমান্য করে আমাদের সম্পত্তি জোরপূর্বক ভোগদখল করে রেখেছেন।’

জাহেদুলের ভাইয়েরা বলেন, ‘প্রশ্ন হচ্ছে, যার হাত থেকে পরিবারের সম্পত্তি রক্ষা হয় না, তিনি কীভাবে জনগণের জানমাল রক্ষা করবেন। আগামী ২৯ মে নির্বাচনে ভোট দেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য আমাদের দুই ভাইসহ পরিবারের অন্যদের ভয়ভীতি প্রদর্শন ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন জাহেদুল হক।’

দুই ভাইয়ের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কথা বলতে বোয়ালখালী উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. জাহেদুল হক চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, আমি মা-বাবার সুসন্তান। আমার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগের সত্যতা নেই।

এছাড়া তিনি ইউএনও এবং ওসিকে টাকা দেওয়া বিষয়টিও অস্বীকার করেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!