ইংল্যান্ডের পয়োঃমন্ত ভেন্যু ট্রেন্ট ব্রিজে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ

0

নটিংহ্যামের ট্রেন্ট ব্রিজ যেন স্বাগতিক ইংল্যান্ডের জন্য দারুণ এক পয়োঃমন্ত ভেন্যু। এই ভেন্যুতেই ওয়ানডে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড উপহার দিয়েছে তারা। শুধু একবার নয়, দু’বার এই রেকর্ডের জন্মদাতা ইংল্যান্ড।

২০১৮ সালের জুনেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ট্রেন্টব্রিজে ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৮১ রানের বিশাল স্কোর গড়ে তোলে ইংলিশরা। এখনও পর্যন্ত একদিনের (৫০ ওভারের) ক্রিকেটে এক ইনিংসে যা সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। জনি বেয়ারেস্ট আর অ্যালেক্স হেলসের দুর্দান্ত দুটি সেঞ্চুরি, জেসন রয় আর ইয়ন মরগ্যানের বড় দুটি হাফ সেঞ্চুরির ওপর ভর করে এই রেকর্ড উপহার দেয় ইংলিশরা।

শুধু ৪৮১ রানই নয়, এই ইনিংসের আগে ওয়ানডে ক্রিকেটে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ছিল ৪৪৪ রানের। সেই ইনিংসটিও এই একই মাঠে উপহার দিয়েছিল ইংলিশরা। বলা হচ্ছে এই বিশ্বকাপেই হয়তো ইংল্যান্ড ওয়ানডে ক্রিকেটে এক ইনিংসে ৫০০ রানের রেকর্ড গড়ে ফেলতে পারে। কে জানে, এই ইংলিশরাই হয়তো এই মাঠে সেই রেকর্ড গড়ে ফেলতে পারে। কারণ ট্রেন্ট ব্রিজে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩ জুন খেলতে নামবে ইংলিশরা। বিশ্বকাপ শুরুর আগে যে পাকিস্তানকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড।

এবারের বিশ্বকাপে এই ট্রেন্টব্রিজে অনুষ্ঠিত হবে মোট ৫টি ম্যাচ। ৩১ মে পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচ দিয়ে এই মাঠে শুরু হবে বিশ্বকাপ। এরপর ৩ জুন ইংল্যান্ড-পাকিস্তান, ৬ জুন অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ১৩ জুন ভারত-নিউজিল্যান্ড, ২০ জুন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশ খেলবে এই মাঠে।

১৭ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন এই মাঠটিতে এর আগে বিশ্বকাপে দুটি ম্যাচ খেলেছিল ইংলিশরা। দুটিতেই জিতেছে তারা। ১৯৭৫ সালে নিউজিল্যান্ড এবং ১৯৯৯ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। ১৯৭৫, ১৯৭৯, ১৯৮৩ এবং ১৯৯৯- চারটি বিশ্বকাপেই ম্যাচের আয়োজক হওয়ার গৌরব অর্জন করেছিল ট্রেন্ট ব্রিজ।

১৮৪১ সালে নটিংহ্যামে প্রতিষ্ঠা করা হয় ট্রেন্টব্রিজ ক্রিকেট স্টেডিয়াম। নটিংহ্যামশায়ারের হোম ভেন্যু এই মাঠটি। ১৮৯৯ সালে প্রথম এই মাঠে টেস্ট ম্যাচের আয়োজন করা হয়।

ব্যাটিং পারফরম্যান্স:-
দলীয় সর্বোচ্চ স্কোর: ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ড ৬ উইকেটের বিনিময়ে ৪৮১ রান করেছিল। এটি আবার বিশ্বরেকর্ডও।
দলীয় সর্বনিম্ন স্কোর: ২০০৮ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ৮৩ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা।
ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান: ইয়ন মরগান এই মাঠে সবচেয়ে বেশি ৪৬২ রান নিয়ে সবার ওপরে রয়েছেন।
এ ক ম্যাচে সর্বোচ্চ: ২০১৬ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ড ওপেনার অ্যালেক্স হেলস ১৭১ রান করেছিলেন।
সেঞ্চুরি: ২০টি। এর মধ্যে ইংল্যান্ডের অ্যালান লাম্ব ও অ্যালেক্স হেলস সর্বোচ্চ দুটি করে সেঞ্চুরি করেছেন।

বোলিং পারফরম্যান্স:-
সর্বোচ্চ উইকেট: ইংল্যান্ড পেসার জেমস অ্যান্ডারসন এই ভেন্যুতে মোট ১৬টি উইকেট পেয়ে সবার ওপরে রয়েছেন।
এক ইনিংসে সেরা বোলিং: ২০১৮ সালে ভারতের স্পিনার কুলদীপ যাদব ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ২৫ রানের বিনিময়ে ৬টি উইকেট নিয়েছেন।
পাঁচ উইকেট দখল: মোট ৬বার বোলাররা পাঁচ উইকেট করে নিয়েছেন।

উইকেটকিপিং পারফরম্যান্স:-
সবচেয়ে বেশি ডিসমিসাল: ইংলিশ উইকেটরক্ষক জস বাটলার ১০টি ডিসমিসাল করেছেন।
এক ম্যাচে সেরা: ২০০৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের সাবেক উইকেটরক্ষক ম্যাট প্রিয়র ৬টি ডিসমিসাল করেছিলেন।

ফিল্ডিং পারফরম্যান্স:-
সবচেয়ে বেশি ক্যাচ: ইংল্যান্ডের ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ ও ইয়ন মরগান মোট ৫টি করে ক্যাচ নিয়েছেন।
এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ক্যাচ: ২০০৩ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের রিকি ক্লার্ক ও ২০১৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ইংলিশ ফিল্ডার ক্রিস ওকস ৩টি ক্যাচ নিয়েছেন।

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন