আনোয়ারায় নৌকার জয় ৫ ইউনিয়নেই, একটিতে বিদ্রোহী

0

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৮টিতে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বিজয়ী হলেও অপর একটিতে নৌকার ভরাডুবি হয়েছে।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত উৎসাহ-উদ্দীপনার পাশাপাশি সংঘাত ও খুনের মধ্যেই ১০ ইউনিয়নের ৯০টি ভোট কেন্দ্রে চলে ভোট গ্রহণ।

ভোটের লড়াইয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিতরা হলেন— বারশত ইউনিয়নে এমএ কাইয়ূম শাহ্ (নৌকা) পেয়েছেন ১১ হাজার ৩৬০ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আমিনুল হক চৌধুরী (আনারস) পেয়েছেন ২ হাজার ৫৩৪ ভোট।

রায়পুর ইউনিয়নের বিদ্রোহী আমিন শরীফ (ঘোড়া) পেয়েছেন ৭ হাজার ৩৭১ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জানে আলম (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৭৫৫ ভোট।

বরুমচড়া ইউনিয়নে বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল ইসলাম চৌধুরী (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৫২৬ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শাহদাত হোসেন চৌধুরী (সিএনজি) পেয়েছেন ৩ হাজার ৪৭৪ ভোট ও আবুল বশর (আনারস) পেয়েছেন ৩ হাজার ৩২৫ ভোট।

আনোয়ারা সদর ইউনিয়নে অসীম কুমার দেব (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৮৫ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী দিদারুল ইসলাম চৌধুরী টিপু (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ২ হাজার ২৪৯ ভোট ও শহীদুল ইসলাম (আনারস) পেয়েছেন ২৯২ ভোট।

পরৈকোড়া ইউনিয়নে মামুনুর রশিদ চৌধুরী আশরাফ (নৌকা) পেয়েছেন ৮ হাজার ৯০৭ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নাজিম উদ্দিন (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ১ হাজার ৭৫৮ ভোট।

হাইলধর ইউনিয়নে কলিম উদ্দিন (নৌকা) পেয়েছেন ৯ হাজার ৯৮০ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. সোলাইমান (আনারস) পেয়েছেন ১ হাজার ৬৭১ ভোট ও আবু তাহের (চশমা) পেয়েছেন ১ হাজার ৫৪৪ ভোট।

এর আগে বৈরাগ ইউনিয়নের নোয়াব আলী, চাতরী আফতাব উদ্দিন চৌধুরী সোহেল ও বারখাইনের হাসনাত জলিল শাকিল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হন। তবে বটতলী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদের নির্বাচন স্থগিত রয়েছে।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm