আক্রান্ত
১১৪৯০
সুস্থ
১৩৫৫
মৃত্যু
২১৬

আছে মাত্র দুটি, কী হবে তৃতীয় ঘূর্ণিঝড়ের নাম? (পূর্ণ তালিকাসহ)

0
high flow nasal cannula – mobile

বুলবুল সদ্য বিগত। আরব সাগর ও বঙ্গোপসাগর ঘিরে উত্তর ভারত মহাসাগরীয় এলাকায় এবার যে ঘূর্ণিঝড়টি জন্ম নেবে, তার নাম হবে পবন। এর পরের নামটি আম্ফান। কিন্তু এরপর? কী হবে তৃতীয় ঘূর্ণিঝড়ের নাম?

নামের তালিকা শূন্য হতে চলেছে। তালিকায় রয়েছে আর মাত্র দু’টি নাম। তাই নতুন নামের তালিকা তৈরি করতে নেমে পড়েছে উত্তর ভারত মহাসাগর অঞ্চলের আটটি দেশ। দেশগুলো হচ্ছে—বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, মিয়ানমার, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, ওমান এবং মালদ্বীপ। এবার অবশ্য এ তালিকায় আরও পাঁচ দেশ যুক্ত হয়েছে। ইরান, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমির, ইয়েমেন ও কাতার। শেষপর্যন্ত বৈঠক হতে পারে ১৩ দেশ মিলেও। প্রতিটি দেশ নিজেদের বিবেচনা করা নাম জমা করবে। তারপর একটা তালিকা বানিয়ে সংশ্লিষ্ট সমস্ত দেশকে পাঠানো হবে। সবশেষে চূড়ান্ত তালিকা।’

ঘূর্ণিঝড়ের নামের তালিকা
ঘূর্ণিঝড়ের নামের তালিকা

নামকরণ অবশ্য যেনতেনভাবে হয় না। নামকরণে মানতে হয় বেশ কিছু নিয়ম। সেই নিয়ম মেনেই সামনের জানুয়ারির মধ্যে তালিকা তৈরি করার তাগাদা আছে দেশগুলোর মধ্যে। সাধারণত ছোট এবং সহজ ভাবে উচ্চারণ করা যাবে, এমনই নাম ঠিক করা হয়। ওই নামের মধ্যে দেশের ভাষাগত ও সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্য থাকা জরুরি। ঘূর্ণিঝড় নামকরণে বেশ কিছু সুবিধাও রয়েছে। একই সঙ্গে দুটি ঘূর্ণিঝড় তৈরি হলে, আলাদাভাবে তা চিহ্নিত করা যায়।

সমুদ্রের উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণে ঘন ঘন ঘূর্ণিঝড় তৈরি হচ্ছে আরব সাগর এবং বঙ্গোপসাগরে। প্রায় পর পর ঘূর্ণিঝড় ‘কিয়ার’, ‘মহাসেন’ এবং ‘বুলবুল’-এর আবির্ভাব ঘটল— তাতে চিন্তায় পড়ে গিয়েছেন আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা। তেমনই এরপর উত্তর ভারত মহাসাগরীয় এলাকায় যে ঘূর্ণিঝড়গুলো তৈরি হবে, কী নাম হবে সেগুলোর— তাও ভাবনায় ফেলেছে আবহাওয়াবিদদের।

ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণের বিষয়টি সমন্বয় করে ভারতের দিল্লির ‘রিজিওনাল স্পেশালাইজড মেটেরিওলজিক্যাল সেন্টার’। নামকরণের রীতিও চালু হয়েছে দেড় দশক আগে থেকে। যদিও বিশ্বের অন্যান্য জায়গায় এই নামকরণের চল অনেক আগেই শুরু হয়েছে। ভারত মহাসাগরে ঘূর্ণিঝড়কে সাইক্লোন বলা হলেও আটলান্টিক মহাসাগরীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড়কে বলা হয় হারিকেন, প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে বলা হয় টাইফুন।

সিডার, আয়লা, পিলিন, লেহর, মাদি, বায়ু, কিয়ার, মহাসেন, বুলবুলের নামকরণ করেছে ওই আটটি দেশ। সামনে যে ঘূর্ণিঝড়টি তৈরি হবে, তার নাম হবে পবন। এই নামটি শ্রীলঙ্কার দেওয়া। পরবর্তী ঘূর্ণিঝড়ের নাম আম্ফান। এটি থাইল্যান্ডের দেওয়া। বাংলাদেশের দেওয়া প্রথম নামটি ছিল অনিল।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

Manarat

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

আরও পড়ুন
ksrm