আগ্রাবাদে বাচ্চুর ভাগ্নে তমাল ‘শক্তি’ দেখালেন পূর্ত ভবন ভাঙচুর করে

জেল থেকে বেরিয়ে এবার মাদকের ব্যবসায়

0

চট্টগ্রামে সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের নির্বাচন যতোই ঘনিয়ে আসছে, ততোই বাড়ছে হুমকি-ধমকি ও শক্তি প্রদর্শনের ঘটনাও।

রোববার (৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাতটায় এমনই এক ‘শক্তি প্রদর্শনের’ ঘটনায় নগরীর আগ্রাবাদের
আগ্রাবাদ গণপূর্ত ভবনে হঠাৎ হামলা চালান আদনান শাহরিয়ার তমাল নামের এক যুবকের নেতৃত্বে চিহ্নিত একদল সন্ত্রাসী। ঘটনার সময় তারা মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এ ঘটনায় গণপূর্ত ভবনের বাইরের থাই গ্লাস, ভেতরের ইলেকট্রনিক বোর্ড ছাড়াও সৌন্দর্যবর্ধনে ব্যবহৃত গাছের টব ভাঙচুর করে তারা।

জানা গেছে, আগ্রাবাদের গণপূর্ত ভবন ঘিরে সন্ধ্যার পর থেকেই বসে মাদকের আসর। স্থানীয় সূত্রে পাওয়া অভিযোগে জানা গেছে, আদনান শাহরিয়ার তমাল বছরখানেক আগে ইয়াবা মামলায় জেল খেটে বের হওয়ার পর ১৫-২০ জনের একটি গ্রুপ নিয়ে গণপূর্ত ভবনে গড়ে তুলেছেন মাদকের আস্তানা।

২০১৯ সালের ২৬ নভেম্বর হালিশহর থানার ঘোলবাগ এক্সেস রোডের জনৈক মাহবুবের বাসায় অভিযান চালিয়ে বাচ্চুর ভাগ্নে আদনান শাহরিয়ার তমালকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৭।

আদনান শাহরিয়ার তমাল চট্টগ্রাম সি এন্ড এফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চুর আপন ভাগ্নে। যদিও রোববারের ঘটনার সময় আলতাফ হোসেন বাচ্চু গণপূর্ত ভবনের বিপরীতে একটি ভবনে সিএন্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সমমনা পরিষদের নির্বাচনী কাজে ব্যস্ত ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, মূলত বাচ্চুর ভয়ে কেউ মুখ খোলে না আদনান তমালকে নিয়ে। প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতার ভাগ্নে হওয়ায় এমনকি সরকারি কর্মকর্তারাও চুপ থাকেন।

তবে একাধিক সিএন্ডএফ ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিযোগ করেছেন, সিএন্ডএফ এসোসিয়েশনের নির্বাচনকে ঘিরে বাচ্চুর ভাগ্নে তমাল তার দলবল নিয়ে বাচ্চুবিরোধী সিএন্ডএফ সদস্যদের ভয় দেখানোর চেষ্টা করে আসছেন বেশ কিছুদিন ধরে।

সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm