আগ্রাবাদের মদের দোকানে সাংবাদিক সেজে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে দুজন ধরা

0

চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ এলাকার একটি লাইসেন্স করা মদের দোকানে চাঁদাবাজির অভিযোগে এক ভুঁইফোড় সাংবাদিকসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ডবলমুরিং থানা পুলিশ।

জানা গেছে, কথিত ওই সাংবাদিক নিয়মিত ওই মদের দোকানে মদ খেতে যেতেন। মদ খেয়ে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে টাকা না পরিশোধ করেই চলে আসতেন তিনি।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) দিবাগত রাতেও একই কায়দায় মদ চাইলে তাকে মদ না দেওয়ায় ক্ষেপে গিয়ে ভাংচুর শুরু করেন তিনি। এ সময় চাঁদা দাবি করার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে আগ্রাবাদ শেখ মুজিব রোডের চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল নামের ওই মদের দোকান থেকে গ্রেপ্তার হওয়া দুই জন হলেন- কামরুল হাসান (৪৫) ও শফিউল আওয়াল শাউন(২৬)।

এদের মধ্যে কামরুল হাসান নিজেকে দৈনিক চৌকস ও উচ্চকন্ঠের সাংবাদিক হিসেবে পরিচয় দেন । তিনি কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার থানার উত্তর সাইচাপাড়া গ্রামের হাজী নুরুল ইসলামের ছেলে । অন্যজন শফিউল আওয়াল শাউন রাঙ্গামাটি জেলার সদর থানার রিজার্ভ বাজার এলাকার আব্দুর রউফ মনি’র ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডবলমমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভূঁইয়া চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, গ্রেফতার কামরুল হাসান ও শাউন বুধবার রাত ৯ টার দিকে চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনালে গিয়ে বিভিন্ন কাস্টমারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এবং প্রতিষ্ঠানের টেবিলের গ্লাস ভাঙচুর করে।

ওসি জানান, প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীরা তাদের থামানোর চেষ্টা করলে তারা কর্মচারীদেরেকেও এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মেরে আহত করেন। এ সময় ওই প্রতিষ্ঠান থেকে তার ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এসময় প্রতিষ্ঠান মালিক থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে তাদের দুইজনকে গ্রেফতার করে। পরে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এছাড়াও এই দুইজন বিভিন্ন সময় নিজেদেরকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে চট্টগ্রাম ইন্টারন্যাশনাল নামক প্রতিষ্ঠান থেকেও বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক সুযোগ-সুবিধা নিতেন বলে জানান ওসি আবুল কাশেম ভুঁইয়া।

এআরটি/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm