ট্রাকে পিষ্ট সাত প্রাণ/ পলাতক চালকের ৬ বছরের দণ্ড চট্টগ্রামে

0

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জে বেপরোয়া ট্রাক চালিয়ে সাতজনকে হত্যার দায়ে চালককে ছয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। তবে দণ্ডপ্রাপ্ত চালক মোস্তাকিন হোসেন জামিনে গিয়ে পলাতক হওয়ায় তার অনুপস্থিতিতেই রায় দেন বিচারক। তিনি নওগাঁ জেলার সদর উপজেলার বাচাড়ী এলাকার নুর মোহাম্মদের ছেলে।

মঙ্গলবার (১১ জুন) চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৌশিক আহমেদ খন্দকার এ রায় দেন। সড়ক দুর্ঘটনার মামলায় সাম্প্রতিক সময়ে চট্টগ্রামে এটিই প্রথম রায়। রায়ে পৃথক দুই ধারায় চালক মো. মোস্তাকিন হোসেনকে তিন বছর করে মোট ছয় বছর সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

চট্টগ্রাম আদালতের জেলা পুলিশ পরির্দশক বিজন কুমার বড়ুয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ২০১৫ সালের ১১ অক্টোরব ভোরে জোরারগঞ্জ থানার সোনাপাহাড় এলাকায় বেপরোয়া গতির একটি ট্রাক উল্টে সাতজন নিহত হয়। নিহত সাতজন হলেন, নওগাঁর আত্রাই উপজেলার সাইদুর (৪০), মো. আলম (৩০), মো. রুবেল (২৫), কালাম মিয়া (২৮) মনির উদ্দিন (৪৫), মো. টিপু (৩২) ও বগুড়ার মো. আজাদ (২৫)।

এ ঘটনায় নিহতের এক স্বজন মোহাম্মদ এলাহী বেপরোয়া গতিতে ট্রাক চালিয়ে হত্যার দায়ে মোস্তাকিন হোসেন নামে ওই চালকের বিরুদ্ধে জোরারগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। ২০১৫ সালের ২৫ নভেম্বর ট্রাকচালক মোস্তাকিন হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। একই বছরের ২৩ ডিসেম্বর মোস্তাকিন হোসেনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন জোরারগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ফরিদ উদ্দিন। মামলায় আটজনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ মঙ্গলবার (১১ জুন) রায় দেন। তবে গ্রেপ্তারের পর জামিনে গিয়ে পলাতক রয়েছেন চালক মোস্তাকিন। সেজন্য তার অনুপস্থিতিতেই রায় দেওয়া হয়।

Loading...
আরও পড়ুন