s alam cement
আক্রান্ত
১০২১১০
সুস্থ
৮৬৮৫৬
মৃত্যু
১৩১৩

অস্ত্র নিয়ে জায়গা দখলে চট্টগ্রামের উপজেলা চেয়ারম্যান

0

প্রকাশ্যে অস্ত্র হাতে জায়গা দখল করতে যাওয়ার অভিযোগ ওঠেছে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুলের বিরুদ্ধে। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে লোহাগাড়ার আমিরাবাদের মা-মনি হাসপাতালের পাশে তিনি দলবল নিয়ে জায়গা দখল করতে যান।

ঘটনার সময় ধারণ করা একটি ভিডিওতে উপজেলা চেয়ারম্যানকে অস্ত্র হাতে দেখা গেছে, এক পর্যায়ে সেই অস্ত্র পাশের একজনের হাতে তুলে দেন উপজেলা চেয়ারম্যান। এর কিছুক্ষণ পরেই চেয়ারম্যানের সাথে থাকা লোকজনকে প্রতিপক্ষের উদ্দেশ্যে ইট পাটকেল ছুঁড়তেও দেখা যায়।

হামলার শিকার পরিবারের সদস্য সিরাজ হক চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান গত ৮-১০ বছর ধরে আমাদের জায়গাটা কিনতে চাচ্ছেন। আমরা জায়গাটা বিক্রি করবো না বলায় উনি আমাদের জায়গার মুখে যে খাল আছে সেটি ভরাট করে সেখানে দেয়াল তুলে দিচ্ছেন। যাতে আমাদের চলাচলের রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। এটা করতেই তিনি দলবল নিয়ে এই হামলার ঘটনা করেন।

আমাদের জায়গাটি জোরপূর্বক দখল করার জন্য জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল ও তার ভাতিজা যুবরাজ প্রকাশ্যে গুলি করেছে। তারা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা চেয়ারম্যান বাবুল বলেন, ‘জায়গাটা ৩০-৩৫ বছর ধরে আমাদের দখলে আছে। আমাদের জায়গায় আমরা গেইট দিচ্ছি। উনারা বলছেন উনাদের যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ হয়ে যাবে।’

গুলির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা আমার লাইসেন্স করা গুলি আমার সাথে থাকে আমার গাড়িতে।’ এক্ষেত্রে সেখানে লাইসেন্স করা গুলি ব্যবহার করার মত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল কিনা এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি এড়িয়ে যান।

তিনি বলেন, ‘এখন এরা ফেসবুকে এখানে ওখানে অপপ্রচার করছে। মূল ঘটনা আপনি কাল থানা থেকে যোগাযোগ করে বুঝে নিয়েন। তাছাড়া উনাদের যদি মনে হয় কোন অন্যায় হচ্ছে তারা থানায় যাক। জমির কাগজপত্র দেখাক। আমাদের জমিতে আমরা গেইট দিচ্ছি তারা বাধা কেন দিবে।’

লোহাগাড়া উপজেলার থানার ওসি জাকের হোসাইন মাহমুদ বলেন, জায়গা জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হাঙ্গামার চেষ্টা চলছে শুনে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কিছু পায়নি। কেউ অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এআরটি/কেএস

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm