অজগরের সেই ২৮ বাচ্চা খাবার পেল ১২ দিন পর, শুরুতেই মুরগির টুকরো

চট্টগ্রামে ইনকিউবেটরে জন্ম নেওয়া ২৮টি অজগরের বাচ্চাকে জন্মের পর প্রথমবারের মত খাবার দেওয়া হয়েছে। চার দিন পর দ্বিতীয় দফায় খাবার দেওয়া হবে তাদের।

সোমবার (৫ জুলাই) চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় গিয়ে দেখা গেছে, অজগরের বাচ্চাগুলো একে অন্যকে জড়িয়ে পড়ে আছে স্তুপ হয়ে। তাদের সামনে খাবার হিসেবে মুরগির মাংসের টুকরো ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. শাহাদাত হোসেন শুভ চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘২৩ জুন হাতে তৈরি ইনকিউবেটরে ২৮টি বাচ্চা জন্মগ্রহণ করে। প্রতিটি বাচ্চাই সুস্থ আছে। প্রতিটি বাচ্চা বর্তমানে ২ থেকে আড়াই ফুট পর্যন্ত লম্বা।’

তিনি বলেন, ‘জন্মের ১২ দিন পরে রোববার (৪ জুলাই) প্রথমবারের মতো খাবার দেওয়া হয়। প্রথম দিন অজগরের বাচ্চাগুলোকে মুরগির টুকরো দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি অজগরের শরীরের ১৫ শতাংশ ওজন হিসেব করে আমরা খাবার দিয়েছি। প্রাথমিকভাবে ২৮ টুকরো খাবার দেওয়া হয়েছে। ৪ দিন পর পর তাদের ওজন অনুযায়ী এই খাবার দেওয়া হবে।’

অজগরের বাচ্চাগুলো এখন স্বাভাবিকভাবে বেড়ে ওঠার পর এসব অজগরকে জেলা প্রশাসকের অনুমতিসাপেক্ষে বন্য পরিবেশে ছেড়ে দেওয়ার পরিকল্পনার কথাও জানালেন এই চিকিৎসক।

একই পদ্ধতিতে ২০১৯ সালে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় হাতে তৈরি ইনকিউবেটরে ২৫টি অজগর সাপের বাচ্চা ফোটানো হয়েছিল। সেগুলোকেও বন্য পরিবেশে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল।

এআরটি/সিপি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!